Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    নোয়াখালীতে মধ্যযুগীয় কায়দায় গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও পর্নোগ্রাফির দুই মামলায় ২ আসামি ছয়দিনের রিমান্ড।



    মোঃইব্রাহিম,নোয়াখালীঃনোয়াখালীর বেগমগঞ্জে স্বামীকে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন এবং পর্নোগ্রাফি আইনে দায়ের করা দুই মামলায় গ্রেপ্তার আব্দুর রহিম ও রহমত উল্লাহর তিনদিন করে ছয়দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।রবিবার নোয়াখালী থেকে আব্দুর রহিম ও রহমত উল্লাহকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ নিয়ে এ ঘটনায় চার আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। ঘটনার ৩২ দিন পর রবিবার রাতে, ৯ জনের নামে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ এবং নারী ও শিশু নির্যাতনের অভিযোগে পৃথক দু'টি মামলা করেন নির্যাতিতা গৃহবধূ।

    এদিকে, নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে অপসারণ করতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ভিডিওটি পেনড্রাইভ বা সিডিতে সংরক্ষণ করতে বিটিআরসি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

    এর আগে, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় প্রধান আসামি বাদল এবং সন্দেহভাজন আসামি দেলোয়ারকে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর ও নারায়ণগঞ্জ থেকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে, তারা দুইজনই অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন।

    ২রা সেপ্টেম্বর স্বামীকে পাশের ঘরে বেঁধে ওই নারীকে বিবস্ত্র করে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন চালায় স্থানীয় বখাটেরা। এ সময় মারধরের ভিডিও মোবাইলে ধারণ করেন তারা।বখাটেদের অত্যাচার ও হুমকিতে নির্যাতিতা গৃহবধূ বাড়ি ছাড়ায় বর্বরতার এমন ঘটনা একমাসের বেশি সময় অগোচরেই থেকে যায়। তবে, সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পরই মাঠে নামে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পরে, ওই গৃহবধূকে তার এক আত্মীয়ের বাসা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

    প্রকাশিত: সোমবার, ০৫ অক্টোবর, ২০২০

    Post Top Ad