Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    শবচরে গলায় ছুরি ঠেকিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষন


    এস.এম.দেলোয়ার হোসাইন মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুরের শিবচরে দোকানে ডেকে নিয়ে গলায় ধারালো ছুরি ঠেকিয়ে৭   বছরের   শিশুকে   ধর্ষণের   অভিযোগ   পাওয়া   গেছে   প্রতিবেশী   মুরগীর দোকানদার সোহান মাদবরের (২০) বিরুদ্ধে।

    গত রবিবার ১৪ মার্চ দুপুরে মাদবরচর হাটে ধর্ষক সোহান তার নিজেরমুরগীর   দোকানের   ভিতরে   নিয়ে   শিশুটিকে   ধর্ষণ   করে।   পরে   কাউকে   বললেশিশুটিকে   ছুরি   দিয়ে   জবাই   করার   ভয়   দেখিয়ে   বাড়িতে   পাঠিয়ে   দেয়।শিশুটি   মাদবরচর   খাড়াকান্দি   সরকারী   প্রাথমিক   বিদ্যালয়ের   প্রথমশ্রেনিতে পড়ে।মাদারীপুরের শিবচরে দোকানে ডেকে নিয়ে গলায় ধারালো ছুরি ঠেকিয়ে৭   বছরের   শিশুকে   ধর্ষণের   অভিযোগ   পাওয়াা   গেছে   প্রতিবেশী   মুরগীরদোকানদার সোহান মাদবরের (২০) বিরুদ্ধে।ধর্ষক সোহান উপজেলার মাদবরচর খাড়াকান্দি গ্রামের লাবলু মাদবরের ছেলে।ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার দুপুরে শিশুটিবন্ধুদের নিযয়ে মাদবরচর হাটের কাছে বাড়ির সামনে খেলাধুলা করছিল।

     ওকেএকটি   মুরগী   দিবে   বলে   ধর্ষক   সোহান   মাদবর   শিশুটিকে   ডেকে   তারদোকানে নিয়ে যায়। ধর্ষক সোহান মাদবর ও শিশুটির বাড়ির পাশাপাশিহওয়ায় সরল মনে সে তার সাথে দোকানে যায়। শিশুটিকে দোকানে নিয়েদোকানের শাটার লাগিয়ে মুরগি কাটার ধারালো ছুটি গলায়ে ধরে ভয়দেখায়ে ধর্ষণ করে সোহান মাদবর। শিশুটিকে মুখচেপে ধরে বলে যদি কারোকাছে বলিস, তাহলে- এই ছুরি দিয়ে তোকে কেটে নদীতে ভাসিয়ে দিব।এক পর্যায়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ শুরু হয় শিশুটির।

     পরে রক্ত মুছে দিয়ে ভয় দেখায়েশিশুটিকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয় ধর্ষক। শিশুটি বাড়িতে এসে ভয়ে পরিবারেরলোকজনকে না বলেই তার পরনের কাপড় ঘরের এককোনে লুকিয়ে রাখে। ওই দিনইশিশুটি অসুস্থ্য হয়ে বিছানায় পড়ে যায়। ৩/৪দিন পর শিশুটির মা ঘরের কোণে রক্তমাখা কাপড় দেখে শিশুটিকে জিজ্ঞেসকরলে শিশুটি ধর্ষণের ঘটনার বিস্তারিত তার মাকে জানায়। বিস্তারিত শুনেধর্ষক   সোহান   মাদবরের   বিরুদ্ধে   গতকাল   বৃহস্পতিবার   রাতে   শিশুটিরবাবা বাদী হযয়ে শিবচর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

    শিশুটির নানী লায়লা বেগম বলেন, আমার নাতির বয়স মাত্র ৭ বছর। বন্ধুদেরনিয়ে বাড়ির সামনেই খেলছিল আমার নাতি। ওকে মুরগি দেওয়াার কথা বলেদোকানে   নিয়ে   ধর্ষণ   করে   লম্পট   সোহান   মাদবর।   আমরা   ওই   লম্পটেরসর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড চাই।শিবচর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিরাজ হোসেন জানান, শিশুটিকেধর্ষনের ঘটনায় শিবচর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে শিশুটিরবাবা। অভিযুক্ত সোহান মাদবর পলাতক আছে। পুলিশ  অভিযুক্ত   সোহানমাদবরকে গ্রেফতারের জন্য মাঠে কাজ করছে


    প্রকাশিত: শুক্রবার ১৯ মার্চ, ২০২১

    Post Top Ad