• সর্বশেষ আপডেট

    মাদ্রাসাছাত্রকে হত্যা, ৭ মাস পর গ্রেফতার প্রধান আসামি

     

    মাদ্রাসাছাত্রকে শারীরিক নির্যাতনের পর হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব-৭)।  

    সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজারের চকরিয়া থানার বমুবিলছড়ি এলাকা থেকে ওই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়।

    গ্রেফতার আসামি হলো, রিদুয়ানুল হক (৩২)। তিনি চকরিয়া উপজেলার চরণদ্বীপ এলাকার বদিউল আলমের ছেলে।
     
    র‌্যাব-৭ জানায়, গত ১৩ মার্চ নগরের মেহেদীবাগে একটি মাদ্রসার টয়লেট থেকে শাবিব শাইয়ান (১১) নামে হেফজ বিভাগের ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। কিন্তু বিষয়টি মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আত্মহত্যা বলে দাবি করলেও পরবর্তীতে মরদেহের ময়নাতদন্তে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের প্রমাণ পাওয়া যায় এবং জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের আলামত পাওয়া যায়। এ ঘটনায় ১৬ মার্চ নিহতের বাবা মশিউর রহমান চৌধুরী বাদি হয়ে নগরের চকবাজার থানায় ৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।  ওই মামলায় অভিযুক্ত ২ আসামি আটক করা হলেও হত্যার সঙ্গে জড়িত প্রধান আসামি পলাতক ছিল।  

    র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) নুরুল আবছার বলেন, প্রায় সাত মাস আগে মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীর হত্যা মামলার এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি মূলত ওই মামলার এজাহারভূক্ত প্রধান আসামি। সোমবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে চকরিয়ার চরণদ্বিপ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি বেশকিছু তথ্য দিয়েছেন। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থার জন্য চকবাজার থানায় পাঠানো হয়েছে। 
    প্রকাশিত মঙ্গলবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩