• সর্বশেষ আপডেট

    ইতিহাস গড়ে প্রথমবার সাফের শিরোপা জিতে নিল বাংলাদেশের মেয়েরা

     

    প্রচুর বৃষ্টিতে দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামের মাঠ ছিলো কাদায় ছুপছুপ। যে মাঠে ভালো ফুটবল খেলা কঠিন। এই প্রতিকূলতার মধ্যেও চারবারের ফাইনালিস্ট নেপালকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে প্রথমবার সাফের শিরোপা জিতে নিল বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দল। দশরথের ১৬ হাজার নেপালি দর্শকের ‘নেপাল, নেপাল’ চিৎকারটা স্তিমিত হয়ে গেল।

    সামর্থ্যের বিচারের দুই দলই প্রায় সমান। রেকর্ড বাংলাদেশের বিপক্ষে। এই সমীকরণে সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে নেপালের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামের এ ম্যাচে খেলা শুরুর ১৪ মিনিটেই শামসুন্নাহার জুনিয়রের গোলে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। অবশ্য শুরু থেকেই যে স্বাগতিক নেপালের ওপর ছড়ি ঘোরাচ্ছিলেন সাবিনা, মারিয়ারা।

    প্রথম মিনিটেই আক্রমণ করে বাংলাদেশ। ১০ মিনিটে স্বপ্নার বদলি নামা শামসুন্নাহার জুনিয়র প্রথম গোল দেন ১৪ মিনিটে। এরপর কিছুটা ছন্দহীন দেখা যায় বাংলাদেশকে। আক্রমণের চেষ্টা চালায় নেপাল। ৩৭ মিনিটে অল্পের জন্য বেঁচে যায় বাংলাদেশ। তার মিনিট পাঁচেক পরেই কৃষ্ণার গোল। ২-০ গোলে এগিয়ে শেষ পর্যন্ত প্রথমার্শ শেষ করে লাল সবুজের মেয়েরা। নেপালের ভুলে ডি বক্সের একটু সামনে বল পেয়ে যান সাবিনা। দেরি না করে ডিফেন্ডারদের ফাঁক গলে বল বাড়িয়ে দেন। সেখানে থাকা কৃষ্ণা বল পেয়ে ডি বক্সে ডুকে বাঁ পায়েয় শটে গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বল জড়ান নেপালের জালে। গোল পাওয়ার পর যেন কিছুটা ছন্দহীন দেখাচ্ছে বাংলাদেশকে। ফ্রি কিক থেকে নেপালের নেওয়া শট প্রথমে বাঁচিয়ে দেন গোলরক্ষক রুপ্না চাকমা। ডান দিকে শূন্যে ঝাঁপিয়ে বল পাঠিয়ে দেন বাইরে। কর্নার পায় নেপাল। সেখানেই বিপদ হতে পারতো বাংলাদেশের। গোল লাইন থেকে অল্পের জন্য গোল হজম থেকে রক্ষা পান মেয়েরা। বেশ কয়েকবারের চেষ্টায় ক্লিয়ার করে বাংলাদেশ।

    এরপর ম্যাচের ৭০ মিনিটে নেপাল ১ গোল শোধ করে। গোল শোধে মরিয়া নেপাল শিবিরে স্বস্তি। ৭০ মিনিটে ডি বক্সে বল পান আনিতা বাসেট। ডান দিকে বল পেয়ে কোনাকুনি শটে বল জড়ান বাংলাদেশের জালে। গোলরক্ষক রুপ্না ঝাঁপিয়ে পড়েও বলের নাগাল পাননি। আবারও কৃষ্ণার গোল। মাঝমাঠের একটু সামনে থেকে ডি বক্সের ডান দিকে লম্বা পাস পান কৃষ্ণা। সুযোগ হাতছাড়া করেননি। নেপালি গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বল জড়ান নেপালের জালে। গোলহজম করার ৭ মিনিট না পেরোতেই বাংলাদেশ আবারও লিড নেয়। এটি কৃষ্ণার দ্বিতীয় গোল। বাংলাদেশ এগিয়ে আছে ৩-১ গোলে।

    এর আগে ৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ ও নেপাল ৩ বার মুখোমুখি হয়েছে। তিনবারই জিতেছে নেপাল। দুই দলের প্রথম দেখা হয়েছিল ২০১০ সালে কক্সবাজারে প্রথম সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে। নেপাল জিতেছিল ৩-০ গোলে।২০১৪ সালের সেমিফাইনালে নেপালের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। সর্বশেষ দেখা হয়েছিল ২০১৯ সালে গ্রুপপর্বে। নেপাল জিতেছিল ৩-০ গোলে। আজ ১৯ই সেপ্টেম্বর স্বপ্নের এক ফাইনালে নেপালের বিপক্ষে মাঠে দুর্দান্ত খেলছে বাংলাদেশ।

    প্রকাশিত সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad