• সর্বশেষ আপডেট

    চকবাজারে আগুন: এক কক্ষ থেকে ৬ মরদেহ উদ্ধার

     

    পুরান ঢাকার চকবাজারে দেবীদ্বারঘাট এলাকায় পলিথিনের কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে ৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ভবনের দ্বিতীয় তলায় ভেতর থেকে দরজা বন্ধ একটি কক্ষ থেকে এসব মরদেহ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।


    ওই কক্ষে বরিশাল হোটেলের কর্মচারীরা মেস করে থাকতেন বলে জানা গেছে। আগুন লাগার পর দুই কর্মচারীর স্বজনেরা তাঁদের নিখোঁজ হওয়ার কথা জানান। ওই কক্ষে ছয় জন থাকতেন। রাতে ডিউটি শেষে ওই কক্ষটিতে ঘুমিয়ে পড়েন তাঁরা। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পর কক্ষে প্রবেশ করে মরদেহ দেখতে পান ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

    আড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় চকবাজারের পলিথিন কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণেআড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় চকবাজারের পলিথিন কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে
    মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পরে ভবনের একটি কক্ষে ছয়টি মরদেহ দেখা গেছে। এর মধ্যে পাঁচ জনের মরদেহ নামানো হয়েছে। উদ্ধার হওয়া মরদেহের মধ্যে চার জনের নাম জানা গেছে—বিল্লাল (৩৩), ওসমান (২৫), শরীফ (১৫), স্বপন (২২)।

    চকবাজারে আগুন: আশপাশের বহু ভবন ঝুঁকিপূর্ণচকবাজারে আগুন: আশপাশের বহু ভবন ঝুঁকিপূর্ণ
    এ দিকে নিখোঁজ হোটেল কর্মচারী ওসামানের (২৫) খালাতো ভাই মো. রুবেল বলেন, ‘আমার খালাতো ভাই যে ভবনটিতে আগুন লেগেছে সেটির নিচতলায় থাকা বরিশাল হোটেলে চাকরি করত। রাতে কাজ করে সে ভবনটির দুই তলায় ঘুমিয়ে ছিল। কিন্তু আগুন লাগার পরে তার আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। একাধিকবার তার ফোনে কল করলে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। আমরা এখন আগুন লাগা ভনটির দুই তলায় গিয়েছিলাম। সেখানে আমরা মানুষের হাড়ের মতো কিছু দেখতে পেয়েছি।’

    হোটেলের ওপর তলায় মেস করে থাকতেন ৬ কর্মচারী। আগুন নেভার পর তাঁদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা
    হোটেলের ওপর তলায় মেস করে থাকতেন ৬ কর্মচারী। আগুন নেভার পর তাঁদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা
    বিল্লালের শ্যালক মো. আব্দুল্লাহ ও ছোটভাই আইয়ুব আলী বলেন, বিল্লালও বরিশাল হোটেলের মেসিয়ার ছিলেন। নাইট ডিউটি করে ভবনের দ্বিতীয় তলায় ঘুমাচ্ছিলেন। আগুন লাগার পর থেকে তাঁর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

    উল্লেখ্য, আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে লাগা আগুন ফায়ার সার্ভিসের ১০ ইউনিটের আড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার খালিদা ইয়াসমিন।
    প্রকাশিত সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad