• সর্বশেষ আপডেট

    হিজাব বিতর্ক: আমোদিনী পালের মামলায় প্রধান শিক্ষক কারাগারে

     

    নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার দাউল বারবাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আমোদিনী পালের করা মামলায় প্রধান শিক্ষক ধরনী কান্ত বর্মণকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

    রবিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 
    মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও মানহানির অভিযোগে গত শুক্রবার পাঁচ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ২০-২৫ জনের বিরুদ্ধে মহাদেপুর থানায় মামলা করেন আমোদিনী পাল।

     ওই মামলার এজহারভুক্ত আরও দুই আসামি কিউ এম সাঈদ টিটো (৫০) ও সামসুজ্জামান মিলনকে (৩৮) গত বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 
    আরও পড়ুন: শিক্ষিকার মামলায় গ্রেফতার ২, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন
    এক নম্বর আসামি ধরনী কান্ত বর্মণ আজ দুপুরে নওগাঁর সিনিয়র জুডিশিয়াল আমলী আদালত-৩- এ হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন।

     আদালতের বিচারক তাউ উল ইসলাম জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

    বিষয়টি নিশ্চিত করে মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন, এজাহারভুক্ত অপর দুই আসামিকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। এছাড়া মামলার তদন্ত সাপেক্ষে এই ঘটনায় অপপ্রচারকারী এবং আরও কেউ জড়িত থাকলে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

    এর আগে শিক্ষার্থীদের মারধরের অভিযোগ তুলে বিদ্যালয়ে হামলার ঘটনার তিন দিন পর ১০ এপ্রিল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ধরনী কান্ত বর্মণ। জিডিতে ওই হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে অজ্ঞাতনামা ১৪০-১৫০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়।
    প্রকাশিত: রবিবার ১৭ এপ্রিল ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad