Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ১৭ টাকা বেশি দামে সয়াবিনের লিটার বিক্রি, ৯০ হাজার জরিমানা

     

    রাজশাহীতে বেশি দামে সয়াবিন তেল বিক্রির অপরাধে তিন ব্যবসায়ীকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ ছাড়া ২২৫ বোতল এক লিটারের তেল জব্দও করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।সোমবার (৭ মার্চ) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অধিদফতরের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় এ অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা ও তেল জব্দ করেন।হাসান-আল-মারুফ জানান, সরকার সয়াবিন তেলের লিটার নির্ধারণ করেছে ১৬৮ টাকা। 

    প্রথমে নগরীর বন্ধগেট এলাকায় ‘খন্দকার স্টোর’ নামের একটি দোকানে ক্রেতা সেজে গিয়ে দেখা যায়, মূল্য তালিকায় খোলা সয়াবিন তেলের দাম ১৬৮ টাকা লেখা থাকলেও বিক্রি করা হচ্ছে ১৮৫ টাকায়। তাই দোকান মালিক মাসুদ করিমকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তবে নগরীর চামড়াপট্টিতে ‘আয়েন এন্টার প্রাইজ’ নামের একটি দোকানে গিয়ে দেখা যায়, ‘স্বাদ’ নামের একটি বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি করা হচ্ছে ১৮৫ টাকায়। 

    বোতলের গায়েও এ মূল্য লেখা। বেশি দামের তেল বিক্রি করায় দোকান মালিক এন্তাজ আলীকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জব্দ করা হয় এক লিটারের ৩৩ বোতল তেল।তিনি জানান, এন্তাজ আলীর দেওয়া তথ্যমতে এই তেলের পরিবেশক নগরীর রাণীবাজার এলাকার ‘আলী ট্রেডার্সে’ অভিযান চালানো হয়।

     সেখান থেকে বাড়তি মূল্য লেখা এক লিটারের ১৯২ বোতল সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়। এ সময় এ প্রতিষ্ঠানটিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করেছে অধিদফতর। প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক মোখলেসুর রহমান অর্থ পরিশোধ করেন।এর আগে, রবিবার (৬ মার্চ) রাজশাহী নগরীর হাদির মোড়ের ‘শাহাবুদ্দিন স্টোরের’ মালিক জুয়েলের বাড়ি থেকে ৮০০ লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। এ সময় জুয়েলকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করে।কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন জানান, একটি অসাধু চক্র এমন কাজ করছে। জেলা প্রশাসনসহ ক্যাবের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এসব অভিযান আরও জোরদার করা উচিত।

    রাজশাহীতে কোনও সিন্ডিকেট আছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার জানামতে নেই। তবে যারা বিদেশ থেকে তেল আমদানি করেন তারাই সিন্ডিকেট করে দাম নিয়ন্ত্রণ করেন।


    প্রকাশিত: রবিবার ০৭ মার্চ ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad