Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের প্রয়োজন আছে: ইনু

      

    ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সংশোধনীর প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করেন জাসদ সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেছেন, ‘যাতে করে মূলধারার গণমাধ্যমকর্মীরা আইনের অপপ্রয়োগ থেকে রক্ষা পায়।’

    বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে সাতক্ষীরা জেলা জাসদের সম্মেলনে যোগ দেওয়ার আগে সার্কিট হাউজে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

    আরেক প্রশ্নের জবাবে ইনু বলেন, ‘দেশের ৫০টি জায়গায় সশস্ত্র সাম্প্রদায়িক হামলা হয়েছে। এই হামলার দায় প্রশাসনের ওপর বর্তায়। দেশে কখনও মন্দিরে, কখনও আহমদিয়া সম্প্রদায়ের ওপর আবার কখনও সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা হচ্ছে। এটা দেশের জন্য শুভ লক্ষণ নয়। আগামীতে আর কোথাও সাম্প্রদায়িক হামলা হবে না, এর গ্যারান্টি দেওয়ায় হচ্ছে রাজনৈতিক দল বা সরকারের প্রধান চ্যালেঞ্জ।’

    সাম্প্রদায়িক কর্মচারীদের নিষ্ক্রিয়তা ও অসাম্প্রদায়িক দলে সাম্প্রদায়িক শয়তানদের অনুপ্রবেশের ফলে ধর্মের নামে দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ঘটছে বলেও জানান তিনি। তিনি সাম্প্রদায়িক সহিংসতা রোধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। 

    তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রশ্নে ইনু বলেন, ‘বিএনপি নিরপেক্ষ নির্বাচন চায় নাকি সরকার বদল করতে চায় এ প্রশ্ন বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। তারা সাংবিধানিক সরকারকে হটিয়ে একটা অস্বাভাবিক ভূতের সরকার প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখে। পূজায় হামলা দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে ঘোলা করার ষড়যন্ত্র।’

    তিনি বলেন, ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির বিস্তারের মাধ্যমে একটি ডিজিটাল জগৎ তৈরি হয়েছে। সেই ডিজিটাল জগৎ সাম্প্রদায়িক শক্তি ও সাইবার অপরাধীদের আক্রমণের মুখে। নারীর চরিত্র হনন করা হচ্ছে এর মাধ্যমে। সুতরাং সাইবার নিরাপত্তা এখন মানবাধিকার রক্ষার মৌলিক কাজ। তবে এর অপপ্রয়োগ হচ্ছে। এই অপপ্রয়োগ রোধে কিছু সংশোধনী আনা দরকার।’

    ১৪ দলীয় জোটের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে ইনু বলেন, ‘জঙ্গিদের ধ্বংস, ঘর কাটা ইঁদুর এবং দুর্নীতিবাজদের ধ্বংস করতে ১৪ দলের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।


    প্রকাশিত: বুুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad