Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    যুবলীগ নতুন কমিটিতে চট্টগ্রামের ৯ জন হলেও মহানগরের নেই কেউ!


    দিগন্ত ডেস্কঃ আওয়ামী যুবলীগের ২০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে চট্টগ্রাম থেকে স্থান পেয়েছেন ৯ নেতা। এদের মধ্যে ৮ জন যুবলীগের মূল কমিটিতে এবং অপরজন কেন্দ্রীয় কমিটির সিসি মেম্বার হিসেবে স্থান পেয়েছেন। তবে চট্টগ্রাম মহানগর থেকে নতুন কমিটিতে ঠাই পাইনি কেও, এতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলে তীব্র সমালোচনা।

    শনিবার (১৪ নভেম্বর) যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

    যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম নতুন কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন। তিনি চট্টগ্রামের পটিয়ার সন্তান।

    সিটি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক আবু মুনির মো. শহীদুল হক রাসেল নতুন কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন। তিনি চট্টগ্রামের আনোয়ারার সন্তান।

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আদিত্য নন্দী কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে মনোনীত হয়েছেন।তিনি চট্টগ্রামের হাটহাজারীর সন্তান
     
    যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক উপ-কৃষি ও সমবায় সম্পাদক মীর মো. মহিউদ্দিন নতুন কমিটিতে পেয়েছেন তথ্য ও গবেষণা সম্পাদকের পদ।  

    চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও সাতকানিয়া পৌর আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন মিন্টু যুবলীগের নতুন কমিটিতে সহ-সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন।

    চট্টগ্রামের সন্তান মো. আব্দুর রহমান উপ-ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন। এছাড়া চট্টগ্রামের সন্তান কায়কোবাদ ওসমান ও প্রফেসর ড. বিমান চন্দ্র বড়ুয়া নির্বাহী সদস্য পদ পেয়েছেন।  

    এছাড়া কেন্দ্রীয় যুবলীগের সিসি মেম্বার হিসেবে মনোনীত হয়েছেন মিরসরাইয়ের সন্তান নিয়াজ মোর্শেদ এলিট।

    এদিকে কমিটিতে চট্টগ্রাম মহানগর থেকে কারও স্থান না হওয়া নিয়ে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করে নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি এক ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে চট্টগ্রাম থেকে ঠাঁই পেয়েছেন দৃশ্যত সংখ্যা দশজন। দশজনের মধ্যে ৬ জনের বাড়ি চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায়। তবে এদের মধ্যে একজন শুধু জেলা-উপজেলাভিত্তিক রাজনীতি করে নেতা হয়েছেন।

    অন্যরা যুবলীগের কেন্দ্রীয় রাজনীতির সাথে আগে থেকে সম্পৃক্ত ছিলেন অথবা কেন্দ্রীয় বা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের রাজনীতিতে নেতৃত্বে ছিলেন। বাকিদের বাড়ি চট্টগ্রাম উত্তর জেলায়। তবে কথা হচ্ছে চট্টগ্রাম মহানগরের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত থাকা কেউ এ কমিটিতে ঠাঁই পায়নি। সম্ভবত চট্টগ্রাম মহানগরের ভেতরে চট্টগ্রাম দক্ষিণ ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় অবস্থিত হওয়ার কারণে চট্টগ্রাম নগরে যে রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালিত হয় এটা ভুলে গেছেন অনেকেই।

    কমিটিতে চট্টগ্রাম উত্তর জেলার বিএনপি পরিবারের একজনকে বিশেষ কারণে পদ দেওয়া হয়েছে দাবি করে তিনি লিখেছেন, ‘অপর একজন জন্মসূত্রে বিএনপি পরিবারের সন্তান। ইতিপুর্বে কোন রাজনৈতিক মিটিং মিছিলে তাকে দেখা না গেলেও কথিত আছে, চট্টগ্রাম বন্দরকেন্দ্রিক ব্যবসা-বাণিজ্যে ভীষণ প্রভাব রাখা এই ব্যক্তি ঢাকায় গিয়ে অথবা চট্টগ্রাম কক্সবাজারে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা বেড়াতে আসলে লাল বোতলে আপ্যায়নের কাজটি করেন তিনি।


    প্রকাশিত: রবিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২০

    Post Top Ad