Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ডেসটিনি এখন ক্রাউনটাচঃ মানিলন্ডারিং মামলার চার্জশিটভুক্ত দুই পলাতক আসামী প্রকাশ্যে নেতৃত্বে!

    সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টির আড়ালে কলাবাগান থানার দায়ের করা মামলা ( মামলা নং-৩৩(৭)/১২) এবং দুর্নীতি দমন বিভাগের মানি লন্ডারিংযের বিশেষ জজ আদালতের বিশেষ মামলা নাম্বার ১৭/ ১৬ এর চার্জশিটভুক্ত আসামী এ. এইচ.এম আতাউর রহমান রেজা ওরফে ক্রাউন রেজা এবং খন্দকার বেনজীর আহম্মেদ সহ ডেসটিনির একদল প্রতারক চক্র পিএসডি মো: আমীর হোসেন মাহবুব, পিএসডি আরিফ হোসেন, পিএসডি জাকির হোসেন, এবং ডেসটিনির ডায়মন্ড এক্সিকিউটিভ মো: মহিউদ্দিন রিপন এবং জাহাঙ্গীর হোসাইন এই রকম নাম না জানা অনেককে নিয়ে ডেসটিনির আলোকে ভিন্ন মাত্রায় প্রতারণার ফাঁদ তৈরী করেছে। উক্ত ব্যক্তিগণ ইতিমধ্যে ক্রাউন টাচ গ্লোবাল লিমিটেড নামক একটি এমএলএম প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

    তারা উচ্চ মাত্রার মুনাফার লোভ দেখিয়ে সাধারন জনগনের কাছ থেকে অর্থ লোপাট করে দেশের বাহিরে পাচার করছে। তারা ২৭০০০০ টাকায় এলিট প্যাকেজ, ২৩৪০০০ টাকায় ফাউন্ডার নামক প্যাকেজ, ২২৫০০ টাকায় রয়্যালিটি প্যাকেজ যাহা হজ্জ প্যাকেজ নামে পরিচিত এবং ১০ লক্ষ টাকা দিয়ে দেশ ও দেশের বাহিরে ডিলার নিয়োগ করছে অথচ এই কোম্পানির কোন উৎপাদন কারখানা ও এমএল এম ব্যবসার সরকারি কোন অনুমোদন নেই। তারা বাজার থেকে নিম্নমানের পণ্য সংগ্রহ করে উচ্চ মুনাফার লোভ দেখিয়ে সাধারন জনগনদের সর্বশান্ত করে যাচ্ছে। অথচ উক্ত ক্রাউন টাচ গ্লোবাল লি: নামক এই প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স এবং জয়েন্ট স্টক লাইসেন্স টি মো: মিনার হোসেন নামক এক অন্য ব্যাক্তির নামে করা হয়েছে। এছাড়া ধরিএী প্রোপার্টিজ নামক একটি প্রতিষ্ঠানের ভূয়া প্লট বিক্রির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এই প্রতারক চক্রটি। এভাবে নামে বেনামে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান খুলে জনগনের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। বর্তমানে ক্রাউন টাচ গ্লোবাল লি: ধরিএী প্রোপার্টিজ লিমিটেড এবং ক্রাউন বাজার লিমিটেড নামে এই ক্রাউন রেজার এই প্রশিক্ষিত প্রতারক চক্রটি দেশে ও বিদেশে অসহায় মানুষদের মোগজ ধোলাই করে সর্বশান্ত করেই চলেছে।

    প্রশ্ন হচ্ছে উক্ত প্রতিষ্ঠানটির ব্যাবস্থপনা পরিচালক এ. এইচ. এম আতাউর রহমান রেজা ছিলেন ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের ক্রাউন এক্সেকিউটিভ এবং ডেসটিনি মাল্টি-পারপাস কোঅপারেটিভ এর কোষাধক্ষ ও উপ-ব্যাবস্থপনা পরিচালক খন্দকার বেনজির আহম্মেদ ছিলেন ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের একজন ডায়মন্ড এক্সেকিউটিভ। তারা দুজনই ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের অর্থ কেলেঙ্কারি মামলার চার্জশিটভুক্ত সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী। এছাড়া তাদের নামে একাধিক প্রতিষ্ঠানের অর্থ কেলেঙ্কারি মামলা চলমান রয়েছে। এছাড়াও ক্রাউন টাচ গ্লোবাল লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের অন্য সকল সদস্যই ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের বিভিন্ন পদে কাজ করতো।

    উল্লেখ্য, এই চক্রটি তাদের কার্যক্রমকে শেল্টার দেওয়ার জন্য ডেসটিনির মতোই মিডিয়ার আশ্রয় নেওয়ার চেষ্টা করছে। আর এরই অংশ হিসাবে তারা অতি সম্প্রতি newsglobalbd.com নাম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল চালু করেছে।

    ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের মাধ্যমে সাধারণ জনগণের শত শত কোটি টাকা আত্মসাৎ করে তারা আবার নতুন নাম প্রতারণা শুরু করেছে। ইতিমধ্যে, ক্রাউন টাচ গ্লোবাল লি: প্রতিষ্ঠানটির শতশত গ্রাহক প্রতারিত হয়ে রাস্তায় দিনাতিপাত করছে। প্রশাসনের দৃষ্টি গোচরের মাধ্যমে  অনতিলম্বে গ্রেফতারের ব্যবস্থা না করলে উক্ত প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ বিদেশে পালিয়ে যেতে পারে। তাহলে আবারও হাজার হাজার মানুষ তাদের শেষ সম্বল হারিয়ে পথে বসবে। তাই প্রতারিত গ্রাহকদের দাবি অনতিবিলম্বে এই প্রতারক চক্রকে আইনের আওতায় এনে তাদের গচ্ছিত অর্থ ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করা।

    প্রকাশিত: রবিবার ৯, অগাস্ট ২০২০

    Post Top Ad