Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    কলেজ ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা! ছয় আসামী গ্রেফতার।

    মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, গাজীপুরঃ- গাজীপুরের কালীগঞ্জে ইজিবাইকে ঘুরতে আসা এক কলেজ ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টায় ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

    শনিবার (১৫ আগস্ট) সকালে তাদের গাজীপুর আদালতের মাধ্যমে জেলে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে শুক্রবার (১৪ আগস্ট) ভোরে তাদের গ্রেফতার করে থানায় এনে জিজ্ঞাসাদ করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মিজানুল হক।

    গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের কাপাইশ গ্রামের হুমায়ুনের ছেলে এনামুল মোড়ল (৩৪), গোপাল চন্দ্র দাসের ছেলে সুজন চন্দ্র দাস (২০), মৃত রঞ্জিত চন্দ্র দাসের ছেলে তরুণী চন্দ্র দাস (২০) ও একই উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের শিংলাব গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে সজিব মিয়া (২০), রবি রয়ের ছেলে উদয় রয় (২০), জাহাঙ্গীরের ছেলে ইলিয়াস (২১)।
    কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মিজানুল হক জানান, গত ৫ আগস্ট গাজীপুর থেকে ইজিবাইক নিয়ে দুই বন্ধুসহ এক কলেজ ছাত্রী উপজেলার জামালপুর এলাকার কাপাইশ গ্রামে ঘুরতে আসে। ঘুরতে ঘুরতে সন্ধ্যা হয়ে গেলে ওই এলাকার বখাটে তিন  যুবক মোটরসাইকেল নিয়ে তাদের গতিরোধ করে। পরে তারা মোবাইলে আরো পাঁচ জনকে আনে। তখন তারা আট জন মিলে কলেজ ছাত্রীর দুই বন্ধুকে কৌশলে বেঁধে তাদের কাছে থাকা নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং মেয়েটি কে পাশের একটি লেবু বাগানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

    এ সময় ওই কলেজ ছাত্রীর কৌশলে ধর্ষণ থেকে রক্ষা পায়। ওই কলেজ ছাত্রী বখাটে সজিবের মোবাইল নম্বর নিয়ে তার নম্বর দিয়ে পালিয়ে যায়।

    কলেজ ছাত্রী বাড়িতে গিয়ে সকল ঘটনার  কথা খুলে বললে তার বাবা কালীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ কলেজ ছাত্রীর সহযোগীতায় বখাটে সজিবকে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে তাকে গ্রেফতার করে। পরে সজিবের মাধ্যমে বাকী ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়।
    এ ব্যাপারে থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টার মামলা (নং-১২) হয়েছে। গ্রেফতারকৃত ৬ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

    প্রাথমিকভাবে ঘটনার সাথে তাদের সম্পৃক্ততার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

    প্রকাশিত: শনিবার ১৫, অগাস্ট ২০২০

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad