Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে পার্কভিউ হাসপাতাল।

    প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
    গত  ৪ জুলাই  চট্টগ্রাম প্রতিদিন নামক একটি অনলাইল পত্রিকায় “আওয়ামী লীগ নেতার জীবন নিয়ে খেললো পার্কভিউ হাসপাতাল, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু” শিরোনামে একটি  সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। উপরোক্ত সংবাদটি আমাদেরও দৃষ্টি গোচর হয়েছে, যা পড়ে আমরা অতীব আশ্চার্য ও গভীর ভাবে মর্মাহত হয়েছি। উক্ত সংবাদটি সম্পূর্ণরূপে মনগড়া, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। আমরা প্রিন্ট পত্রিকা, অনলাইন পত্রিকা ইলেকট্রনিক্স মিডিয়াতে  উক্ত ভিত্তিহীন সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আশাকরি সঠিক সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন  হবে। 

    প্রকৃত ঘটনা নিম্ররূপঃ
    মোঃ হোসেন, বয়স- ৬৫, জন্ম তারিখঃ ১৩/০৭/১৯৫৫ইং, ঠিকানাঃ শিকলবাহা, কলেজ রোড়, পটিয়া, চট্টগ্রাম এই ঠিকানার একজন রোগী আমাদের পার্কভিউ হাসপাতাল লিঃ, ৯৪/১০৩ কাতালগঞ্জ রোড, পাঁচলাইশ, চট্টগ্রামে গত ০২/০৭/২০২০ইং সকাল ০৮:৪৫ ঘটিকার সময় মুমুর্ষ অবস্থায় এক্সিডেন্ট এন্ড ইর্মাজেন্সি বিভাগে আসেন।

    আসার পর ইমাজেন্সির মেডিকেল অফিসার প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানতে পারেন, উনার প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট হচ্ছে এবং সে সময় রোগীর অক্সিজেনের সেচুরেশান ছিল মাত্র ৬২% এমতাবস্থায় জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাৎক্ষনিক 18 151 এর মাধ্যমে জরুরী বিভাগের সর্বোচ্চ ক্ষমতা ১৫ লিটার অক্সিজেন দ্বারা সাপোর্ট দিয়ে ওনার অক্সিজেন সেচুরেশান বাড়ানোর চেষ্টা করেন। রোগীর অক্সিজেন সেচুরেশান ৭২% উঠার পরেও অবস্থার কোন উন্নতি হয়নি।

    এমতাবস্থায় রোগীর অভিভাবককে জরুরী ভিত্তিতে আইসিইউ প্রয়োজন বলে ব্যবস্থা নিতে বলেন এবং পাশাপাশি অন্যান্য ব্যবস্থার মাধ্যমে রোগীর শারিরীক অবস্থার উন্নতির চেষ্টা করতে থাকেন। এখানে উল্লেখ থাকে যে, উক্ত রোগী বিগত ১৫/০৬/২০২০ইং তারিখে সিসিইউ (করোনারী কেয়ার ইউনিট) এ কনসালটেন্ট ডাঃএম এম আলম সাদী'র তত্তববধানে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিয়ে ২০/০৬/২০২০ইং তারিখে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে চলে যান।

    উক্ত রোগী পূনঃরায় বিগত ২৬/০৬/২০২০ইং তারিখে একই কনসালটেন্টের তত্ববাধানে দ্বিতীয়বারের মত ভর্তি হন এবং ০১/০৭/২০২০ইং তারিখে ছাড়পত্র নিয়ে যান। আপনার সদয় অবগতির জন্যে জানানো যাচ্ছে যে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রজ্ঞাপন মোতাবেক পার্কভিউ হাসপাতালের আইসিইউ সম্পূর্ণ ভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মুমুর্ষ রোগীদের সেবা প্রদান করছে। এদিন যেহেতু আমাদেরহাসপাতালের কোন আইসিইউ বেড খালি ছিলনা বিধায় উনাকে অন্যকোন আইসিইউ সম্বলিত হাসপাতালে দ্রুত ভর্তি করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

    রোগীর অভিভাবকেরা অন্য হাসপাতালে নেয়ার ব্যাপারে পারস্পরিক দ্বিধা দন্দে থেকে সিদ্ধান্ত গ্রহণে বিলম্ব করেন এবং ইতিমধ্যে ইমার্জেন্সি চিকিৎসকের সকল প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে আনুমানিক সকাল ০৯:২৫ ঘটিকার সময় মৃত্যু বরণ করেন। আমরা পার্কভিউ হাসপাতাল লিঃ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে মরহুম মোঃ হুসেনের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

    সুতরাং পত্রিকায় প্রকাশিত বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করেন সংবাদটি সঠিক নয়। রোগী হাসপাতালে অবস্থান করা কালীন সময়ে আমাদেরপক্ষ থেকে সকল প্রকারের সেবা নিশ্চিত করা হয়। পার্কভিউ হাসপাতালের চিকিৎসা সেবায় আস্থা ও সন্তুষ্ট ছিলেন বিধায় উক্ত রোগী বারংবারঅত্র হাসপাতালের চিকিৎসা নিতে এসেছেন ।

    আপনারা অবগত আছেন যে, বিগত ১৪ই মে ২০২০ইং গণপ্রজাতন্ত্রী সরকারের প্রজ্ঞাপন মতে পার্কভিউ হাসপাতালই করোনা চিকিৎসার জন্যে চট্টগ্রামের নির্বাচিত প্রথম ও একমাত্র বেসরকারী হাসপাতাল প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে হাসপাতালটি সকল নাগরিকের সু-চিকিৎসা নিশ্চিত করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের এ ক্রান্তিকালে আপনাদের সার্বিক সহযোগীতায় সরকারের সহযোগী হিসেবে অত্যন্ত সুনামের সাথে টট্রগামে চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রেখেছে । এক্ষেত্রে আমরা সম্মুক যোদ্ধা হিসেবে অত্যন্ত গর্বিত ও সম্মানবোধ করি।

    এতএব, আপনাদের বহুল প্রচারিত দৈনিক নিউজ প্রিন্ট পত্রিকা, অনলাইন পত্রিকা এবং ইলেকট্রনিক্স মিডিয়াতে সঠিক সংবাদ উপস্থাপন করার অনুরোধ করছি ।

    বিনীত
    ডাঃ এ টি এম রেজাউল করিম
    ব্যবস্থাপনা পরিচালক
    পার্কভিউ হাসপাতাল লিমিটেড |
    ৯৪/১০৩, কাতালগঞ্জ রোড়, পাঁচলাইশ, উট্টগ্রাম।


    প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই, ২০২০

    Post Top Ad