Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    চাকরির প্রলোভনে তরুণীকে ধর্ষণ


    চাকরির প্রলোভনে তরুণীকে ধর্ষণ

    রাজধানীতে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শেলটার সিকিউরিটি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

    গত ১৭ জুলাই শুক্রবারে সকালে শেলটার সিকিউরিটির অফিস থেকে চাকরির জন্য ডাকা হয় ভুক্তভোগী তরুণীকে। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান জসিমের কক্ষে তাকে রেখে বাইরে থেকে দরজা আটকে দেয় ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহিদ ও শহিদুল।

     গত শুক্রবার সকালে ওই তরুণীকে প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ তার পরিবারের। মামলা করার পর তিন অভিযুক্তের দুই জনকে গ্রেফতার করে বাড্ডা থানা পুলিশ। তবে পলাতক রয়েছে মূল আসামি জসিম।


    ওই তরুণীকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করতে থাকে জসিম। এক পর্যায়ে তাকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করে বলে জানিয়েছে তার পরিবার। বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য হুমকিও দেয়া হয় তাকে। তবে ঘটনার এক সপ্তাহ পর ওই তরুণী তার পরিবারকে জানায়।

    ওই তরুণীর পরিবারে অভিযোগ করে, তরুণীকে রিসিপশনে কাজ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় এবং জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়।

    পুলিশ বলছে, অভিযুক্ত দুই জনকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে পলাতক রয়েছে মূল আসামী শেলটার সিকিউরিটির চেয়ারম্যান মো. জসিম।


    বাড্ডা থানার ওসি মো. পারভেজ ইসলাম বলেন, ওই রুমটায় এমন যে, সে জানে সেখানে চিৎকার দিলেও বাঁচানোর কেউ নাই। তারপর জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে এবং বলে এটা কাউকে জানালে তোমার ক্ষতি হবে। জাহিদকে গ্রেফতার করার জন্য আমরা উত্তরা পর্যন্ত গিয়েছিলাম তবে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে সে পালিয়ে যায়। তবে আমরা আশাবাদী যে খুব দ্রুত আমরা তাকে ধরে ফেলব।


    প্রকাশিত: রবিবার ২৬, জুলাই ২০২০

    Post Top Ad

    সজীব হোমিও প্যাথিক হল