Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    নোয়াখালী সেনবাগে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা,হামলা ভাংচুর আহত ৮

    মোঃ ইব্রাহিম, নোয়াখালীঃ- সেনবাগ উপজেলার  দক্ষিণ রাজারামপুর অলিকাজী বাড়ীতে এক কলেজ ছাত্রী ( ১৯) কে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।ঘটনায় জড়িতদের হামলায় ৭ নারী ও ১ শিশু সহ ৮ জন জন আহত হয়েছে।  সেনবাগ থানা পুলিশ খবর পেয়ে রাত ২ টায় আহতদের উদ্ধার করে রৌশন আরা (৪৫) নিলুফার ইয়াসমিন (২০) তাসলিমা আক্তার (২৩) রেজিয়া বেগম (৩৫) সাজ্জাদুল ইসলাম নাহিদ(১২) কে সেনবাগ সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে নাজমুন নাহার (২৫) তাহেরা বেগম(৩৮) ও জান্নাতুল নাঈম (১৬) প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

    রোববার বিকেলে ভিকটিমের বোন গনমাধ্যমকে জানান, পরিবারের ৪ জনই প্রবাসে রয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সাড়ে ১১ টায় ওই বাড়ীর প্রবাসী বেলালের কন্যা লায়ন জাহাঙ্গীর আলম মানিক মহিলা কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী (১৯) প্রকৃতির ডাকে বাহির হলে কোন একসময় একই বাড়ী জোবায়ের হোসেন (৩২) বিল্ডিং এ ঢুকে লুকিয়ে থাকে। ছাত্রীটি ঘুমিয়ে পড়ার পর যোবায়ের তার শরীরের স্পর্শকাতর স্হানে হাত দেয় এবং ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এক পর্য্যায়ে ধস্তাধস্তিতে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ভিকটিমের উরু ও মুখমণ্ডলে কামড়িয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় তার চিৎকারে ঘরে থাকা মহিলারা এগিয়ে এলে যোবায়েরের লোকজন ঘরে ঢুকে আসবাবপত্র ভাংচুর করে ও সকলকে মারধর করে তাকে ছিনিয়ে নেয়।

    ভিকটিম জানান,হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্হায় তাদেরকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা ভয়ভীতি প্রদর্শন করে হাসপাতাল ত্যাগে বাধ্য করেছে।বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে পরিবারটি। ভিকটিমের বোন নাজমুন নাহার বাদী হয়ে চিহ্নিত  ৮ জন সহ অজ্ঞাত বেশকয়েকজন কে অভিযুক্ত করে সেনবাগ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    সেনবাগ থানার ওসি আবদুল বাতেন মৃধা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,মামলা রুজু চুড়ান্ত পর্য্যায়ে রয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হবে। 

    অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) শাহজাহান শেখ জানান, দ্রুততম সময়ের মধ্যে আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

    প্রকাশিত: রবিবার, ০৫ জুলাই, ২০২০

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad