Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    মহিপুরে প্রাচীন কাঠের পুল ভেঙ্গে যাওয়ায় হাজারো মানুষের দূর্ভোগ চরমে

    রাসেল কবির মুরাদ, কলাপাড়া-পটুয়াখালীঃ-  মহিপুরথানার ডালবুগঞ্জ ও চরপাড়ার ভাড়ানির খালের উপর নির্মিত বহু পুরোনোকাঠের পুলটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলারের ধাক্কায় সোমবার বিকেলে ভেঙ্গে পড়েযায়। এই  কাঠের পুল দিয়ে ডালবুগঞ্জ, মিঠাগঞ্জ ও মহিপুর ইউনিয়নেরপ্রায় ১০হাজার মানুষ চলাচল করে। কাঠের  পুলটি   ভেঙ্গে   যাওয়ায়   এ  পথেচলাচলকারী ৩ ইউনিয়নের মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। 

    কাঠের পুল সংলগ্ন রসুলপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাএই কাঠের পুল দিয়ে স্কুলে যাতায়াত করে। কাঠের পুল ভেঙ্গে যাওয়ার ফলেঝুঁকি নিয়ে ছোট্র ডিঙি নৌকায় এপার-ওপার পার হচ্ছে কোমলমতিশিশু, নারী, বয়োবৃদ্ধসহ হাজারো মানুষ। স্থানীয়দের দাবী ভেঙ্গে যাওয়াকাঠের পুলটি  অপসারন করে এখানে একটি স্থায়ী গার্ডার ব্রীজনির্মানের। ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নেবর স্থায়ী বাসীন্দা মিজানুর রহমান বাচ্চু বলেন, সোমবার বিকেলে একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলারের ধাক্কায় ব্রীজটি দুমরে-মুচড়ে পড়ে যায়।

    এমনভাবে ভেঙ্গে যায়  যা সংস্কার করা সম্ভব  নয়। এইকাঠের পুল দিয়ে শিশু শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাওয়া আসা করে। ব্রীজটি ভেঙ্গেপড়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। চরম দূর্ভোগে তিন ইউনিয়নেরমানুষ।ভাড়ানির খালের উপর স্থায়ী ভাবে একটি গার্ডার ব্রীজ নির্মাণকরা খুবই জরুরী। তাই সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের সূ-দৃষ্টি কামনা করছেনতিনি।ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম সিকদার বলেন, উপজেলানির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। 

    রসুলপুর সরকারীপাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি ছাত্র /ছাত্রী পারাপার হয় এই কাঠের পুলদিয়ে। এছাড়া ডালবুগঞ্জ ও মিঠাগঞ্জ ও মহিপুর এ তিন ইউনিয়নের কয়েকহাজার জনগণ আসা যাওয়া করে। তাই জরুরী ভিত্তিতে এখানে একটিগার্ডার ব্রীজ প্রয়োজন। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মাদশহিদুল হক জানান, আমি ঘটনাটি শুনেছি ওখানে এলজিইডি অথবা পিআই অফিসের মাধ্যমে স্থায়ীভাবে ব্রীজের ব্যাবস্থা করা হবে।

    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই, ২০২০

    Post Top Ad