Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বার এঘটনায় এলাকায় তোলপাড়


    কামরান হাবিব,রংপুর:: লালমনিরহাটের পাটগ্রামে স্কুল পড়ুয়া (ষষ্ঠ শ্রেণি) ১২ বছর বয়সী শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়ে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে। 

    মঙ্গলবার (২৬ মে) রাতে শিশুর বাবা বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় মোক্তার উদ্দিন ওরফে মোক্তার আলী নামের একজনকে আসামি করে মামলা করেন। ওই মামলায় মোক্তারকে গ্রেফতার দেখিয়ে গতকাল বুধবার (২৭ মে) দুপুরে লালমনিরহাট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বিজ্ঞ আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

    অভিযুক্ত ধর্ষক মোক্তার উদ্দিন ওরফে মোক্তার আলী পাটগ্রাম উপজেলাধীন পাটগ্রাম ইউনিয়নের টেপুরগারী এলাকার আবুল খায়েরের ছেলে।


    ওই শিক্ষার্থীকে পুলিশ হেফাজতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বুধবার দুপুরে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
    শিক্ষার্থী জানায়, ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তাকে ধর্ষণ করে আসছিল প্রতিবেশী দাদা মোক্তার আলী। ঘন ঘন বমি ও খেতে না পারার কারণ খুঁজতে গিয়ে দাদি বুঝতে পারেন শিশুটি অন্তঃসত্ত্বা।

    পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহান্ত বলেন, '১২ বছর বয়সী শিক্ষার্থী অন্তঃসত্ত্বা। প্রাথমিক পরীক্ষায় নিশ্চিত হওয়ার পর তার বাবার অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ১২ বছর বয়সী শিক্ষার্থী শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 


    এছাড়াও 'প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মোক্তার ওই শিশুটিকে ৭ দিন ধর্ষণের কথা জানিয়েছে।আমরা ঘটনার সাথে আছি বলেই দ্রুত সময়ের মধ্য প্রকৃত বিষয়টি দৃশ্যমান হয়েছে। তবে পাটগ্রাম থানা পুলিশ সকল অপরাধ দমনে সর্বদাই প্রস্তুত। তবে অনেকেই মনে করছেন লালমনিরহাট জেলা পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা বিপিএম পিপিএম যোগদানের পর থেকেই বদলে গেছে গোটা জেলা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং সকল শ্রেণী পেশার মানুষ দ্রুত সময়ের মধ্যে পাচ্ছেন ন্যায় বিচার ও শান্তি।

    দিগন্ত নিউজ ডেস্ক/কেএস

    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad