Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    সীতাকুণ্ডে রৌদে-বৃষ্টিতে লন্ড-ভন্ড কাচা বাজার চরম বিপাকে ক্রেতা বিক্রেতা

    সীতাকুণ্ডে রৌদে-বৃষ্টিতে লন্ড-ভন্ড কাচা বাজার চরম বিপাকে ক্রেতা বিক্রেতা
                             
    নিজস্ব প্রতিবেদক,সীতা্কুন্ড:: করোনা পরিস্থিতিতে জনসমাগম কমাতে এবং নিরাপদ দুরত্ব বজায়ে নিধার্রিত স্থান হতে স্কুল মাঠে স্থানান্তর করা হয়েছে সীতাকুন্ড পৌরসদর কাচা বাজার। জনসচেতেনতায় স্থানান্তরীত হওয়ার পর থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বেচা-কেনায় সরগরম রয়েছে বাজার। কিন্তু একেবারে অপরিকল্পীত অবস্থায় বাজারটি স্থাপন করায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের জন্য বাঁধ সেদেছে রৌদ ও বৃষ্টি। 

    ফলে গত কয়েকদিনের থেমে থেমে বৃষ্টিতে একেবারে লন্ড-ভন্ড হয়ে পড়েছে বেচা-কেনা। এতে ক্রেতা সংকটে পড়ে ব্যবসায় লোকসান গুনতে হচ্ছে বিক্রেতাদের, অন্যদিকে কাদামাক্ত বাজারে চরম বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে ক্রেতার। দিনে দিনে অবস্থার চরম হয়ে উঠায় প্রয়োজনী পন্য কিনতে বিপাকে পড়তে হচ্ছে বলে জানান ক্রেতারা।


    ক্রেতারা বলেন, দুরত্ব বজায়ে কাঁচা স্কুল মাঠে সরানোর হলেও উন্নয়ন করা হয়নি বাজারের অবকাঠামোগত উন্নয়ন। যার ফলে মাঠের নানা স্থানে পন্য বিক্রয় করতে থাকায় রৌদের মধ্যে দীর্ঘক্ষন ধরে হেটে হেটে ক্রয় করতে হচ্ছে প্রয়োজনীয় পন্য। এছাড়া বৃষ্টি হওয়ার সাথে সাথে পানির ফোটায় ভিজে হতে একাকার হওয়া ছাড়া পন্য ক্রয় করা সম্ভব নয় বলে জানান তারা। এ অবস্থায় পন্যের পসরা বসিয়ে প্রতিনিয়ত ব্যবসায় লোকসান গুনছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।


    তারকারী ও মাছ বিক্রেতারা বলেন, বাজার সরিয়ে দেয়া হয়েছে খোলা আকাশের নিচে। ক্রেতারা শূন্য বাজারের পাওয়া যাচ্ছে না পযার্প্ত পন্যমূল্য। যে সময় নিধার্রন করা হয়েছে তাতে লাভ তো দুরের কথা পূজি নিয়ে ঘরে ফেরা মুশকিল। বিশাল মাঠে বাজার ছড়িয়ে দেয়া হলেও নেই পয়নিস্কাশন ব্যবস্থা ও ছাউনি। সময় রৌদ আর বৃষ্টির সময় পানিতে ভিজে পন্য বিক্রয় করে ঘরে জুটছে না দুমুঠু খাবার। এভাবে চলতে থাকলে খুব শীঘ্রয় ব্যবসা ছেড়ে ভিক্ষার থালা হাতে নিতে বলে জানান তারা। 

    দিগন্ত নিউজ ডেস্ক/কেএস

    প্রকাশিত: রবিবার, ০৩ মে, ২০২০

    Post Top Ad