Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    আনোয়ারায় বৈরাগ ইউনিয়ন পরিষদের সীমানা প্রাচীর নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৩, চেয়ারম্যান কার্যালয় ভাংচুর

    চেয়ারম্যান কার্যালয় ভাংচুর

    এস এম সালাহ্উদ্দীন, আনোয়ারা-চট্টগ্রামঃ- চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়ন পরিষদের জায়গায় সীমানা প্রাচীর দিতে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে সংঘর্ষে পুলিশ সদস্যসহ উভয়পক্ষের ১৩ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কার্যালয়ে ইট, পাথর ছুড়ে কার্যালয়ের উভয় পাশের জানালার ভাংচুর করা হয়েছে।

    এ ঘটনায় ২ পুলিশ ও ১ গ্রাম পুলিশ সদস্যসহ আহত হযেছেন ১৩ জন। আহতরা হলেন , কর্ণফুলী বন্দর পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই পারভেজ, কনস্টেবল গিয়াস, গ্রামপুলিশ ইলিয়াস (২৮)। অনন্যরা হলেন, ইমদাদ হোসেন রনি (২৭) সাইমুন খাঁন (২৮) তারেকুজ্জামান(২৮), রবিন(২২), জুয়েলখাঁন (২৫), প্রবাস সিংহ (৪৫), মোহন সিংহ (৬০), প্রমিলা রানি (৫৮),শীবু সিংহ (৬০), মাইকেল দেব (২৮)। শুক্রবার (১৫ই মে) সকাল ১০টার দিকে ওই স্থানে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

    এ ব্যাপরে জানতে চাইলে বৈরাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সোলায়মান বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের অভ্যন্তরে একটি শ্রী শ্রী কালীবাড়ী মন্দির রয়েছে। সেটার সীমানা নির্ধারণের জন্য ২০১৬ সালের ৩১শে অক্টোবর তাদেরকে ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে চিঠি ইস্যু করে ডাকা হয়েছিল। কিন্তুু তারা আসেনি। বার বার তারা জায়গার কথা বলে কিন্তু ডাকলে আসে না। তারা শুধু আরো জায়গা পাবে বলে ইউনিয়ন পরিষদের জায়গা দখল করতে চাই। এভাবে বিগত পাঁচ বছর হয়ে গেলেও কোন বৈঠকে তারা আসেনি।


    কিন্তুু ইউনিয়ন পরিষদের চারদিকে খোলামেলা হওয়ায় প্রতিদিন সন্ধ্যাো হলে উন্মুক্ত স্থানে মাদক সেবনকারীদের আড্ডা ও অসামাজিক কার্যকালাপ চলতে থাকলে এলাকার মানুষের অনুরোধে ভূমিমন্ত্রীর জ্ঞাতার্থে  চারদিকে একটি সীমানা প্রাচীর দেওয়ার জন্য মাটি ভরাট করে শুক্রবার সীমানা প্রাচীর দিতে গেলে এলাকার জগদীশ চন্দ্র, প্রদীপ কুমার সিংহ, ও সুশেনের হুকুমে সীমানা প্রাচীর দিতে যাওয়া ব্যক্তিদের উপর অর্তরকিত হামলা ও অফিস ভাংচুর চালায় এতে আমাদের ৮ জন লোক আহত হয়েছে। আহতদেরকে আনোয়ারা মেডিকেল ও ছায়াপথ ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এবং তিনি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও  জানান।

    অভিযুক্ত জগদীশ কুমার সিংহের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ না পাওয়ায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।  অপর অভিযুক্তরা বলেন, এ ঘটনায় তাদের ১৪ জন আহত হয়েছে। তাদের মধ্য বেশী আহত হয়েছে প্রবাস সিংহ (৪৫), মোহন সিংহ (৬০), প্রমিলা রানি (৫৮),শীবু সিংহ (৬০), মাইকেল দেব (২৮)। তাদেরকে আনোয়ারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানান তারা। ঘটনার উৎপত্তি জানতে চাইলে প্রদীপ কুমার সিংহ জানান, চেয়ারম্যান আমাদের জায়গায় জোর করে সীমানা প্রাচীর দিলে আমরা বাধাঁ দিতে গেলে আমাদেকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে হামলা করে। এ ঘটনায় আমরা কর্ণফুলী থানায় মামলা করতে গেলে (ওসি)  মামলা নেয়নি। এখন আমরা মন্ত্রীর বাসায় যাচ্ছি বলে জানান তিনি।

    এ ব্যাপরে কর্ণফুলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ঈসমাইল হোসেন জানান, এ ঘটনায় পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে ২ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। কোন পক্ষ এখনো মামলা করে নাই। অভিযোগ পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।


    প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৫ মে, ২০২০

    Post Top Ad