Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    আর কত মানুষ আক্রান্ত হলে চালু হবে হলি ক্রিসেন্ট, করোনা হাসপাতাল

    আর কত মানুষ আক্রান্ত হলে চালু হবে হলি ক্রিসেন্ট করোনা হাসপাতাল

    করোনা হটস্পট এখন চট্টগ্রাম রোগী ভর্তির জায়গা নেই জেনারেল হাসপাতাল ও বিআইটিইডিতে পুরোপুরি প্রস্তুত হওয়ার পর কেন চালু হচ্ছেনা এই করোনা হাসপাতাল?

    এম এ মেহেদি, প্রধান প্রতিবেদক:  চট্টগ্রামে বেসরকারি ক্লিনিক গুলোর দুটি, চারটি করে আইসিইউ, এইসডিইউ বেড ভেন্টিলেটর দিয়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য তৈরি করেছে একটি পূর্নাঙ্গ হাসপাতাল।

    সিটি মেয়রের আশ্বাসে বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক মালিক সমিতির অর্থায়নে নগরীর খুলশীর পরিত্যক্ত হলি ক্রিসেন্ট ডায়াগনষ্টিক সেন্টারকে চট্টগ্রামের করোনায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য আধুনিক ভাবে নির্মাণ করা হয়েছে। গত মাসে চালু হওয়ার কথা ছিল করোনা হাসপাতালটি।

    তবে হাসপাতাল নির্মাণের আগে মেয়র সব ধরণের সহযোগীতার করার আশ্বাস দিলেও এখন অর্থ ও জনবল সংকটের কারনে চালু করা যাচ্ছেনা হাসপাতালটি।

    প্রথমে মেয়র জানিয়েছিলেন নবনির্মিত করোনা হাসপাতালটি পরিচালনা করবে, বেসরকারি ক্লিনিক মালিক সমিতি, তদারকি করবে জেলা স্বাস্থ্য অধিদফতর ও জেলা প্রশাসন।


    কিছুদিন পর আবার বৈঠক করেন মেয়র, বৈঠকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একটি ইউনিট হিসেবে হলিক্রিসেন্ট হাসপাতালটি পরিচালিত হবে বলে সিদ্ধান্তে হয় এছাড়া চমেক হাসাপাতাল এবং সরকারি হাসপাতালগুলো থেকে চিকিৎসক-নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মী দিয়েই পরিচালিত হবে এই হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতাল। 

    তবে ইতিমধ্যে করোনা হাসপাতালটিকে তাদের ইউনিট হিসেবে পরিচালনা করতে অপারগতা জানিয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ, তারা জানান প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেই ১০০ বেডের করোনা ইউনিট বানানোর কাজ চলছে ।

    মেয়র জানান করোনা হাসপাতালটি পরিচালনা করতে গেলে মাসে প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা ব্যয় হবে। যা সরকারের অনুদান ছাড়া চালানো কোন ভাবেই সম্ভব নয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত মতে এই বিষয়ে তড়িত নির্দেশনার জন্য সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রস্তাবনা পাঠানোর পরিকল্পনা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই করোনা সেবা প্রদানে চালু করা সম্ভব হবে হলি ক্রিসেন্ট করোনা হাসপাতালটি। 


    অন্য দিকে করোনার হটস্পট এখন চট্টগ্রাম ১১ দিনে বেড়েছে ৭'শ এর বেশি আক্রান্ত রোগী এদিকে জেনারেল হাসপাতাল আর রোগী নিবেনা জানিয়ে দিয়েছে ইতিমধ্যে ১০০ বেডে পুরোপুরি করোনা রোগী ভর্তি রয়েছে।

    বিশেষজ্ঞরা বলছেন এখনিই যদি হলি ক্রিসেন্ট করোনা হাসপাতালটি চালু করা না হয়, ভয়াবহ অবস্থা হবে চট্টগ্রামে করোনা রোগীদের, হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা না পেয়ে চিকিৎসার অভাবে মারা যাবে অনেক মানুষ।

    এদিকে কবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুদান আসবে কবে চালু হবে এই করোনা হাসপাতাল বলতে পারেনি সংশ্লিষ্ট কেউই।

    হাসপাতালটি প্রস্তুত হওয়ার পর মেয়র বলেছিলেন, হাসপাতালটি কয়েক বছর ধরে বন্ধ ছিল, সরকারি ভাবে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল করোনা রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে, এ হাসপাতালের উপর চাপ কমাতে সব বিষয় বিবেচনা করে বেসরকারি ক্লিনিক মালিক সমিতিকে আহব্বান করেছি, উনারা আমার আহব্বানে সাড়া দিয়ে হলি ক্রিসেন্টকে করোনা রোগীদের জন্য পূর্ণাঙ্গ হাসপাতাল বানিয়েছে।


    বানিজ্যের কথা চিন্তা না করে মানুষের কল্যাণে অতিদ্রুত হাসপাতালটি চালু করবে কর্তৃপক্ষ এমনটা আশা সাধারণ মানুষের।

    দিগন্ত নিউজ ডেস্ক/কেএস

    প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ মে, ২০২০

    Post Top Ad