Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    মে মাসের মধ্যেই বাংলাদেশ করোনামুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা

                   
    সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি অ্যান্ড ডিজাইন (এসইউটিডি) এর ডাটা ড্রাইভেন ইনোভেশন ল্যাবের গবেষকেরা আভাস দিয়েছেন, বিশ্বে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব আগামী মে মাসের মধ্যে ৯৭ শতাংশ কমে আসবে। বাংলাদেশ এ ভাইরাসটি ৩০ মে’র মধ্যে ৯৯ শতাংশ বিলীন হয়ে যাবে।

    সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি অ্যান্ড ডিজাইনের (এসইউটিডি) ডাটা ড্রাইভেন ইনোভেশন ল্যাব গতকাল রবিবার নিজস্ব ওয়েবসাইটে ১৩১টি দেশের করোনা সংক্রান্ত এই তথ্য তুলে ধরে। 

    করোনার বিদায়ের দিনক্ষণের বিষয়ে এমন পূর্বাভাস এটাই প্রথম। করোনাভাইরাস বিস্তারের ধরন, মানবদেহে এর ক্ষতিকর প্রভাব ও বৈশিষ্ট্য সব মিলিয়ে ওই গবেষকেরা পূর্বাভাস দিয়েছেন, মে মাসে ৯৯ শতাংশ কমে গেলেও বাংলাদেশ থেকে ভাইরাসটির পুরোপুরি বিদায় নিতে ১৫ জুলাই পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। আর সারা বিশ্ব থেকে করোনা পুরোপুরি বিদায় নিতে পারে ৮ ডিসেম্বরের মধ্যে।


    এসইউটিডি তাদের গবেষণায় সাসসিপটাবেল ইনফেক্টেপ রিকভারড (সার) মডেল ব্যবহার করেছে। এ মডেল অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমার প্রমাণ মিলছে। গবেষকদের দাবি অনুযায়ী বিভিন্ন দেশ থেকে পাওয়া তথ্যে ও করোনা ভাইরাসের জীবনচক্রের মেয়াদ সম্পর্কে প্রচুর তথ্যের ওপর ভিত্তি করে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছনো হয়।

    বাংলাদেশ ছাড়াও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ১৩১টি দেশ সম্পর্কে নিজেদের ওয়েবসাইটে এ ধরনের অনুমাননির্ভর পূর্বাভাস দিয়েছেন এসইউটিডির ওই গবেষকরা।

    বিশ্ববিদ্যালয়টির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ গবেষণায় সাসেপটিবল ইনফেকটেড রিকভার্ড (সার) মডেল ব্যবহার করা হয়েছে। বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর পর্যালোচনা করে এমন অনুমান করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা। পরিস্থিতির পরিবর্তনের ওপর ভিত্তি করে এ তথ্য নিয়মিত পরিবর্তন করা হয়। এদিকে সতর্কতাস্বরূপ বিশ্ববিদ্যালয়টির পক্ষ থেকে বলা হয়।

    ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যগুলো শুধু শিক্ষা ও গবেষণার জন্য, এর ভুলত্রুটি থাকতে পারে। এ মডেল ও তথ্য বিভিন্ন দেশের পরিস্থিতি ও বাস্তবতার সঙ্গে নাও মিলতে পারে। এ ছাড়া এসব তথ্য প্রকৃতির ওপর ভিত্তি করে পরিবর্তিত হতে পারে। পাঠককে অবশ্যই এ অনুমাননির্ভর তথ্য জানার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে।


    প্রকাশিত: সোমবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২০

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad