Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম (সিভাসু)


    চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এমএস ও এমপিএইচ শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিভাসু) জানুয়ারি-জুন ২০২০ সেমিস্টারে এমএস এবং এমপিএইচ প্রোগ্রামে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন আজ বুধবার (১২.০২.২০২০) অনুষ্ঠিত হয়েছে।

    সকাল ১১টায় সিভাসু অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধানঅতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল-এর নির্বাহীচেয়ারম্যান কৃষিবিদ ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার। অনুষ্ঠানে প্রধান পৃষ্ঠপোষকহিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভাসু’র উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। সিভাসু’র মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নূরুল আবছার খান, ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. জান্নাতারা খাতুন, ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আবদুল আহাদ এবং ওয়ান হেল্থইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. শারমীন চৌধুরী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

    পরিচালক (গবেষণা ও সম্প্রসারণ) প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন উচ্চশিক্ষা ও গবেষণাকমিটির সমন্বয়ক ড. পংকজ চক্রবর্তী। এমএস ও এমপিএইচ প্রোগ্রামে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে কৃষিবিদ ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার বলেন, জীবনে বড় হতে হলে, বড় কিছু অর্জন করতে হলে বড় স্বপ্নদেখতে হবে এবং এর পেছনে লেগে থাকতে হবে। কাজ করতে হবে। কাজ করে গেলে, কাজের প্রতিআন্তরিকতা (ডেডিকেশন) থাকলে জীবনে সফল হতে পারবেন।

    gifs website

    পৃথিবীর যে কোন প্রান্তেনিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করতে পারবেন। কারণ, কোন প্রচেষ্টা বৃথা যায় না।নবাগত স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের গবেষণা করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সিভাসু’তে গবেষণা করার ভালো একটা পরিবেশ রয়েছে। অত্যাধুকি ল্যাবরেটরি রয়েছে। আপনারা ভালোভাবে গবেষণা করবেন। আইডিয়া শেয়ার করবেন। দেখবেন-কাজ অনেক সহজহয়ে যাবে। মনে রাখবেন, একটা গবেষণা দিয়ে আপনারা ‘হিরো’ হয়ে যেতে পারেন। 

    প্রধান পৃষ্ঠপোষকের বক্তৃতায় সিভাসু উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ বলেন, এমএস ও এমপিএইচ শিক্ষার্থীদের মূল কাজই হলো গবেষণা। আর গবেষণা করতে হবে নিডবেইজড (চাহিদার ভিত্তিতে)। গবেষণার ফলাফল মাঠ পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থকতা। গবেষণার দ্বারা যাতে দেশের মানুষ সামাজিকভাবে, অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হতে পারে সেই দিকে খেয়াল রাখতে হবে। জানুয়ারি-জুন ২০২০ সেমিস্টারে এমএস (মাস্টার অব সায়েন্স) কোর্সে ১০১ জন এবংএমপিএইচ (মাস্টার অব পাবলিক হেল্থ) কোর্সে ৩০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছেন।উল্লেখ্য, এমপিএইচ কোর্সে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ২৮ জন এমবিবিএস, ১ জনডিভিএম এবং ১ জন বিএসসি (অনার্স) ইন ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজিডিগ্রিধারী।


    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

    Post Top Ad