Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    চসিক নির্বাচনে বড় বিদ্রোহের মুখে আওয়ামী লীগ | DigontoNewsBD.com



    চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীদের নিয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থীরা। 

    নগরীর ৪১টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ৩৭টি ওয়ার্ডেই যেমন একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছে, ঠিক তেমনি ১৪টি সংরক্ষিত কাউন্সিলরের মধ্যে ১২টিতে বিদ্রোহ । এমনকি মনোনয়ন থেকে বাদ পড়া ২১ জন বর্তমান কাউন্সিলরের মধ্যে ১৭ জনই মনোনয়ন জমা দিয়েছে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে। তবে বিদ্রোহীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিতে হুশিয়ারি দিয়েছে দলের হাইকমান্ড।

    শেষ পর্যন্ত কোনো হুমকি-ধমকি’ই কাজে আসলো না। বৃহস্পতিবার মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা। সিটি কর্পোরেশনের ৪১টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে মাত্র ৪টি ওয়ার্ডে রয়েছে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী। আর বাকি ৩৭টি ওয়ার্ডে মূল প্রার্থীকে চ্যালেঞ্জ জানাতে নির্বাচন যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছে এক থেকে চার জন পর্যন্ত বিদ্রোহী প্রার্থী। 

    বিদ্রোহী প্রার্থী যুক্ত হওয়ায় কিছুটা বেকায়দায় পড়তে হবে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের। এর মধ্যে দলীয় সমর্থন না পাওয়া ১২ জন পুরুষ এবং ৫ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। অথচ বিদ্রোহ ঠেকাতে মনোনয়ন প্রত্যাশী সাড়ে চারশ নেতা-কর্মীকে গণভবনে ডেকে নিয়ে গিয়েছিল দলীয় হাইকমান্ড।

    বিদ্রোহী প্রার্থীদের নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতারাও কিছুটা বিব্রত অবস্থায় রয়েছেন। মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করা না হলে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রথমে শোকজ এবং পরবর্তীতে দল থেকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানিয়েছেন নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল।

    নির্বাচন কমিশনের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী ২৯ মার্চের এই নির্বাচনের জন্য মেয়র পদে ৯ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২২০ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৫৮ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। আর ৮ই মার্চ মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। 

    gifs website


    প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

    Post Top Ad