• সর্বশেষ আপডেট

    নোয়াখালী-১ আসনের খন্দকার আর আমিনের প্রার্থিতা বাতিল

     
    দ্বৈত নাগরিকত্ব থাকায় নোয়াখালী-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার আর আমিনের প্রার্থিতা বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আজ মঙ্গলবার ইসির উপসচিব মো. আব্দুছ ছালামের সই করা এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়,  যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব থাকায় রিপ্রেজেন্টেশন অব দ্য পিপল অর্ডার, ১৯৭২ এর ধারা ৯১ই এর কজ (২) এর বিধান অনুযায়ী তার প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে। চিঠিতে জানানো হয়, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জনাব খন্দকার আর আমিনের দ্বৈত নাগরিকত্ব (যুক্তরাষ্ট্র) সংক্রান্ত অভিযোগের বিষয়ে দায়েরকৃত রিট পিটিশনে (পিটিশন নম্বর-১৬৬৯২/২০২৩) হাইকোর্ট বিভাগ অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা প্রদান করেন। ওই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে শুনানির যুক্তিসংগত সুযোগ দিয়ে তদন্ত শেষে অভিযোগটির সত্যতা পাওয়া যায়। গত ২৭ ডিসেম্বর হাইকোর্ট বিভাগ ওই তদন্ত প্রতিবেদনের আলোকে স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার আর আমিনের প্রার্থিতা সংক্রান্তে যথাযথ আইনানুগ প্রক্রিয়া অবলম্বন করে উপযুক্ত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ইসিকে নির্দেশনাসহ রায় দিয়েছেন। হাইকোর্ট বিভাগের রায়ের বিরুদ্ধে খন্দকার আর আমিন পিটিশনার হয়ে আপীল বিভাগে সিভিল মিসসেলেনিয়াস পিটিশন (সিএমপি) দায়ের করেন, যা মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) শুনানি অন্তে খারিজ করা হয়।চিঠিতে আরও জানানো হয়, প্রার্থী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব বহাল থাকাবস্থায় নির্বাচনের দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রের প্রথম খণ্ডের তৃতীয় অংশে উল্লিখিত ১(খ) দফায় বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৬৬(২) অনুযায়ী, সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার বা থাকার অযোগ্য নন— মর্মে মিথ্যা ঘোষণা প্রদান করে বাংলাদেশের সংবিধান এবং নির্বাচন পরিচালনা বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধান লঙ্ঘন করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার বা থাকার অযোগ্য মর্মে বিবেচিত হয়েছেন।এছাড়া, হাইকোর্ট বিভাগ কর্তৃক রিট পিটিশন গত ২৭ ডিসেম্বরের প্রদত্ত রায় মোতাবেক রিপ্রেজেন্টেশন অব দ্য পিপল অর্ডার, ১৯৭২ এর ধারা ৯১ই এর কজ (২) এর বিধান অনুযায়ী স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার আর আমিনের প্রার্থিতা বাতিল করার বিষয়ে ইসি সদয় সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই অবস্থায় বর্ণিত কারণে বিধান অনুযায়ী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী-১ নির্বাচনী এলাকায় আপনার (খন্দকার আর আমিন) প্রার্থিতা বাতিল করা হলো। এর আগে নোয়াখালী-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার রুহুল আমিনের প্রার্থিতা বাতিল করতে নির্বাচন কমিশনকে দেওয়া হাইকোর্টের নির্দেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। আজ মঙ্গলবার  প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে আপিল বেঞ্চ রুহুল আমিনের আবেদন খারিজ করে দেন। যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্বের তথ্য গোপন করে নোয়াখালী-১ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন খন্দকার রুহুল আমিন। তাকে প্রতীকও বরাদ্দ দেয় নির্বাচন কমিশন। তবে দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগে প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে ১৯ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনে আবেদন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি শফিকুর রহমান। তাতে সাড়া না পেয়ে ২০ ডিসেম্বর রিট করেন তিনি। রিটের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি যাচাই করে প্রতিবেদন দিতে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। দুই সংস্থার প্রতিবেদনে খন্দকার রুহুল আমিনের দ্বৈত নাগরিকত্বের প্রমাণ মেলে। তাই তার প্রার্থিতা বাতিলে পদক্ষেপ নিতে নির্বাচন কমিশনকে ২৭ ডিসেম্বর নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।
    প্রকাশিত মঙ্গলবার ০২ জানুয়ারি ২০২৩