• সর্বশেষ আপডেট

    ব্যালটে সিলের সঙ্গে স্বাক্ষর থাকবে, অবৈধ ভোট গণনা হবে না: ইসি আনিছুর

     

    আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটারকে দেওয়া ব্যালট পেপারের অংশে সিলের পাশাপাশি সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তার স্বাক্ষর থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. আনিছুর রহমান। কেউ জোর করে ভোট দিলে স্বাক্ষরহীন ব্যালট গণনা করা হবে না বলেও জানান তিনি।  মো. আনিছুর রহমান আজ শুক্রবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রার্থী এবং নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নিয়ে মতবিনিময়ের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব বলেন। ইসি আনিছুর রহমান বলেন, ‘নির্বাচনকে সুষ্ঠু করতে ব্যালট পেপার সকালে কেন্দ্রে পাঠানো হবে। ব্যালট পেপারের ভোটারকে দেওয়া অংশে এবার সিলের পাশাপাশি সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তার স্বাক্ষর থাকবে। ব্যালেট পেপারের যে অংশ ভোটারকে দেওয়া হয়- সেটাতে আগে শুধু একটা সিল থাকতে। এবার সেখানে সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারের স্বাক্ষর থাকতে হবে। এটাও আমরা নতুন সংযোজন করেছি আইনে। এটা ছাড়া জোর করে কেউ ভোট দিলেও তা গণনা হবে না। সেই ভোট বাতিল এবং অবৈধ ভোট হিসেবে গণ্য হবে।’ ভোটগ্রহণে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের দায়িত্ব পালনে বিরত থাকার আহ্বান এবং কারা এমপি হবেন সেই তালিকা হয়ে গেছে- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর এমন বক্তব্যের প্রেক্ষিতে করা প্রশ্নের জবাব দেন আনিছুর রহমান। তিনি বলেন, ‘কোনো সিলেকশন হবে না, ভোট সুষ্ঠু, অবাধ-সুন্দর হতে হবে। ভোটারের ভোট দিতে হবে। উনার কাছে এমন তালিকা থাকলে প্রকাশ করতে বলুন। এটা নিয়ে আমার কথা নেই।’‘যারা নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করছেন তাঁরা রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁরা রাষ্ট্রের কর্মচারী। কোনো দলের বা সরকারি কর্মচারী নন। সংবিধানে বলা আছে নির্বাহী বিভাগের সবার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা দেওয়া। নির্বাচন কমিশন যাকে যেখানে দায়িত্ব দেওয়া প্রয়োজন, তাঁকে সেখানে দায়িত্ব দিয়েছে। সেই দায়িত্ব যদি পালন না করে- অপরাধ যেটা হবে, সে অপরাধের জন্য দায়ী হবেন।’ যোগ করেন তিনি। সরকার দলীয় প্রার্থীদের প্রটোকল নিয়ে নির্বাচনী প্রচার চালানোর বিষয়ে জানতে চাইলে এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘কে কতটুকু প্রটোকল পাবেন- সেটি মতবিনিময় সভায় বলে দিয়েছি। আশা করছি আপনারা আর এটা দেখবেন না।’নির্বাচনে সেনা মোতায়েন প্রসঙ্গে ইসি আনিসুর রহমান বলেন, ‘২৯ ডিসেম্বর থেকে সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‍্যাব, পুলিশ ও আনসার সদস্যরা নির্বাচনী এলাকাগুলোয় টহল দেবেন। তাঁরা এক জায়গায় থাকবে না, সমগ্র নির্বাচনী এলাকায় ঘুরে-বেড়াবে। যেখানে সহায়তা দরকার, তারা সহায়তা দেবে।’সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ইসি আনিছুরের পাশে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার মো. শাখাওয়াত হোসেন, বিজিবির ২৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল সৈয়দ আরমান আরিফ ও ৬০ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. আশিক হাসান উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
    প্রকাশিত শুক্রবার ২২ ডিসেম্বর ২০২৩