• সর্বশেষ আপডেট

    বরগুনায় খাকদোন নদীর পারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

     

    মোঃ শাকিল আহমেদ, বরগুনাঃবরগুনার খাকদোন নদীর পাড়ে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা ৪৩ টি স্থাপনা উচ্ছেদ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।  

    মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরের দিকে বরগুনা পৌর মাছ বাজার এলাকায় জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আল নূরের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করে থাকেন।
    এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (শিক্ষা ও কল্যাণ শাখা, সংস্থাপন শাখা) জাহিদুর রহমান।

    এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের বরগুনার শাখার সভাপতি মুশফিক আরিফ বলেন, খাকদোন নদী দখল মুক্ত করার জন্য আমরা দীর্ঘ দিন ধরে আন্দোলন সংগ্রাম করেছি।
    আমরা বিভিন্ন মানুষের দ্বারস্থ হয়েছি। সর্বশেষ আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়েছে।

    তাই আমরা আদালতের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।  
    বরগুনা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আল নূর বলেন, বরগুনা জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ‘খাকদোন নদীর পৌর মাছ বাজার সংলগ্ন এলাকায় অবৈধ ভাবে তীর দখল করে এসব স্থাপনা গড়ে উঠেছিল। তাই অবৈধ ৪৩ টি ঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে।  

    বরগুনা শহরের খাকদোন নদী থেকে পায়রা নদীর সঙ্গে সংযুক্ত খালটি স্থানীয় ভাবে ভাড়ানি খাল নামেই পরিচিত। বরগুনা জেলা শহরের প্রধান বাজারের মধ্য দিয়ে বয়ে চলা এই খালটির দু’পাড়ে দীর্ঘ বছর ধরে দেড় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা গড়ে ওঠে। ফলে খালটি সংকুচিত হতে হতে এক সময় সব্যতা হারায়। অবৈধ দখলদারদের দৌরাত্ম্যের কারণে এক পর্যায়ে বন্ধ হয়ে যায় নৌ যোগাযোগ।  

    ভাড়ানি খালের দুই পাড়ের দুই কিলোমিটার অবৈধ দখল উচ্ছেদের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। উচ্চ আদালতের নির্দেশের পর বরগুনা জেলা প্রশাসন খাল দখল মুক্ত করার জন্য অভিযান শুরু করা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে চলমান অভিযানে মঙ্গলবার খাকদোন নদী একটি অংশে এ দখল মুক্ত করার জন্য উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে বরগুনা জেলা প্রশাসন।

    প্রকাশিত মঙ্গলবার ২১ মার্চ ২০২৩