• সর্বশেষ আপডেট

    ৮ম বর্ষে নগরীর এপিক হেলথ কেয়ার

     

    ক্যান্সার নির্ণয়ে সব পরীক্ষা এখন চট্টগ্রামে ক্যান্সার নির্ণয়ে বায়োপসি অথবা শরীর থেকে টিস্যু নিয়ে যেসব পরীক্ষার জন্য জন্য ঢাকা অথবা দেশের বাইরে পাঠানো হতো সেসব পরীক্ষা এখন সম্ভব হচ্ছে চট্টগ্রামে। বন্দরনগরী চট্টগ্রামের
    প্রথম আইএসও অ্যাক্রিডিটেশন প্রাপ্ত হেলথ কেয়ার সেন্টার এপিক ক্যান্সার নির্ণয়ের যাবতীয়
    পরীক্ষা চট্টগ্রামেই চালু করেছে। এখন থেকে চট্টগ্রাম মহানগরী, জেলা-উপজেলাসহ সমগ্র
    চট্টগ্রাম বিভাগের রোগীদের ক্যান্সার নির্ণয়সহ যাবতীয় জটিল ডায়গনস্টিক পরীক্ষা চট্টগ্রামের
    করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে এপিক হেলথ কেয়ার পরীক্ষা।


    মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর পাঁচলাইশে এপিক হেলথ কেয়ার সেন্টারে ৭ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে এক ‘মিট
    দ্যা প্রেস’ অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান এপিক হেলথ কেয়ারের এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্টর (সেলস
    এন্ড মার্কেটিং) টি এম হান্নান।

    সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দেশের দ্বিতীয় রাজধানী বলা হয় বন্দরনগরী চট্টগ্রামকে। এই
    চট্টগ্রামে বিশ্বমানের স্বাস্থ্যসেবা সুনিশ্চিত করতে আইএসও অ্যাক্রিডিটেশন সনদ’ অর্জনের
    মাধ্যমে ল্যাবরেটরি সেবায় এপিক হেলথ কেয়ার চট্টগ্রামকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। আগে
    ক্যান্সার নির্ণয়সহ যেসব ডায়গনস্টিক পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের রোগীদের ঢাকা অথবা
    দেশের বাইরে যেতে হতো বা স্যাম্পল ঢাকায় প্রেরণ করতে হতো সেসব পরীক্ষা এখন শতভাগ
    চট্টগ্রামের করার সক্ষমতা অর্জন করেছে এপিক। ক্যান্সার নির্ণয়ে বায়োপসির পাশাপাশি
    ফ্রোজেন সেকশান’ নামক বিশেষ পরীক্ষার মাধ্যমে অপারেশন চলাকালীন সময়ে রোগীকে অপারেশন
    টেবিলে রেখেই ২০ থেকে ২৫ মিনিটের মধ্যেই রোগীর শরীরের ক্যান্সারের পরিধি শনাক্তকরণের সব
    ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে এপিক হেলথ কেয়ারে।

    সংবাদ সম্মেলনে এপিক হেলথ কেয়ার কর্তৃপক্ষ জানায়, দ্রুত রিপোর্ট প্রদানের উদ্দেশ্যে এপিক
    হেলথ কেয়ার যুক্ত করেছে সার্বক্ষণিক পূর্ণকালীন ল্যাব কনসাল্টেন্ট। চট্টগ্রামের ১ম ল্যাব
    হিসেবে ২০১৭ সাল থেকে নিয়মিতভাবে প্রতি মাসে বায়ো রেড ইউএসএ, এবং রেনডক্স ইউকে’র সাথে এক্সটার্নাল কোয়ালিটি এসিউরেন্স প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করে বিশ্বের উন্নত ল্যাবসমূহের সাথে
    তুলামূলকভাবে গুণগত মান নিশ্চিত করে করে আসছে। এছাড়া সিডেটিভ এন্ডোস্কপি (ব্যথামুক্ত
    পদ্ধতি), কলোনস্কপি, ফাইব্রোস্ক্যান, বিএমডি, ম্যমোগ্রাফি সহ বহু আধুনিক মেডিকেল
    ডায়াগনস্টিক মেশিন যুক্ত হয়েছে এপিক হেলথ কেয়ারে।

    বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে কেক কাটা, রক্তদান কর্মসূচী, সরকারি হাসপাতালগুলোতে হুইল চেয়ার বিতরণ,
    মাসব্যাপী সকলের জন্য সকল টেস্ট ২৫% ডিক্সাউন্টে সহ নানান কার্যক্রম ঘোষণা করা হয়।
    মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এপিক হেলথ কেয়ারের এক্সিকিউটিভ
    ডাইরেক্টর(সেলস এন্ড মার্কেটিং) টি এম হান্নান, , পরিচালক (বিজনেস ডেভলপমেন্ট) জসীম
    উদ্দিন, এজিএম এডমিন এন্ড এইচ আর মো. আরেক হোসাইন প্রমুখ।
    প্রকাশিত মঙ্গলবার ১৮ অক্টোবর ২০২২