• সর্বশেষ আপডেট

    পাকিস্তান হারতেই কাবুলের রাস্তায় উল্লাস আফগানদের!

     

    রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপের শিরোপা ঘরে তুলেছে শ্রীলঙ্কা। স্বাভাবিকভাবেই বিপর্যস্ত শ্রীলঙ্কায় কাল ছিল উৎসবের রাত।


    তবে সেই উৎসবের ছোঁয়া লেগেছে সুদূর আফগানস্তানেও। ফাইনালে পাকিস্তান হারতেই উল্লাস শুরু হয় আফগানিস্তানে। কাবুলের রাস্তায় বেরিয়ে নেচে-গেয়ে এবং বাজি পুড়িয়ে উদযাপন করেন হাজারো মানুষ।
    ফাইনালের পর কাবুলের রাস্তায় আফগানদের উল্লাসের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কাবুলের রাস্তায় জড়ো হয়ে নাচছেন আফগানরা। সব বয়সের মানুষই যোগ দিয়েছেন উৎসবে। অনেককে বাজি পোড়াতে দেখা গেছে। অনেকে আবার আনন্দে কেঁদেও ফেলেছেন।

    পাকিস্তানের হারে আফগানদের উল্লাসের পেছনে রয়েছে পুরনো ইতিহাস। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচে মাঠের বাইরে হাতাহাতিতে জড়ান দু’দেশের সমর্থকরা। এরপর ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও রেষারেষিতে জড়ানোর দৃশ্য দেখা যায়। আর এবারের এশিয়া কাপে দুই দলের সমর্থকরা মারামারিতেও জড়িয়েছেন।

    গত বুধবার পাকিস্তানের বিপক্ষে শেষ ওভারে হেরে যায় আফগানিস্তান। ম্যাচের মাঝেই আফগানিস্তানের ফরিদ আহমাদ ও পাকিস্তানের আসিফ আলী তর্ক ও হাতাহাতিতে জড়ান। আসিফ আলীর উইকেট নিয়ে উল্লাসে মাতেন আফগান বোলার। বিষয়টি ভালোভাবে নেননি পাকিস্তানি ব্যাটার। তিনি রীতিমতো ব্যাট উঁচিয়ে ফরিদকে মারতে যান এবং ডান হাতের কনুই দিয়ে আফগান পেসারের বুকে ধাক্কা দেন। তখন আসিফের দিকে তেড়ে যান ফরিদ। পরে অন্য ক্রিকেটারদের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এই ঘটনায় ইতোমধ্যে জরিমানা করা হয়েছে আফগানিস্তানের ফরিদ আহমাদ ও পাকিস্তানের আসিফ আলীকে। দুইজনকেই ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া একটি করে ডিমেরিট পয়েন্টও যোগ হয়েছে তাদের নামের পাশে।  

    পরে এই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে দুই দলের সমর্থকদের মধ্যেও। ম্যাচটির শেষদিকে দুই ছক্কা মেরে পাকিস্তানকে জিতিয়ে ফাইনালে তোলেন তরুণ পেসার নাসিম শাহ। ম্যাচ শেষে তাই আফগানরা একটু বেশিই উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। স্টেডিয়ামে তাদের চেয়ার দিয়ে পাক-দর্শকদের আক্রমণের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে। সেই ঘটনার কারণে ইতোমধ্যে ৩৯১ জন আফগান সমর্থককে গ্রেপ্তার করেছে আরব আমিরাত পুলিশ।

    শুধু গ্রেফতার নয় আফগান সেই সমর্থকদের তিন হাজার দিরহাম (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৭৭ হাজার টাকার বেশি) জরিমানাও করা হয়েছে। সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওর সূত্র ধরে স্টেডিয়ামের ক্ষতিসাধন করায় ৯৭ জন আফগানকে, পাকিস্তানের সঙ্গে মারামারির ঘটনায় আরব আমিরাতের বিভিন্ন অংশ থেকে আরও ১১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সবমিলিয়ে এ ঘটনায় ৩৯১ জন দর্শককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানাচ্ছে গণমাধ্যমগুলো। সেই ঘটনার রেশ যে এখনও কাটেনি তা কাবুলের রাস্তায় দেখা গেল।

    প্রকাশিত সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad