• সর্বশেষ আপডেট

    বিএনপির আমলে শ্রমিকরা ন্যায্য বেতন পেতো না

     

    রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ বিএনপি সরকারের আমলে শ্রমিকেরা না খেয়ে থাকলেও, তাদের খাওয়ানোর মতো কেউ ছিলো না। তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি। আজকের দিনে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর শ্রমিকরা ন্যায্য মূল্য ও বেতন ভাতা পাচ্ছে। পাশাপাশি শ্রমিকের ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে। সবকিছু বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হয়েছে। সম্প্রতি চা শ্রমিকদের বেতন-ভাতা বাড়ানোর আন্দোলন করার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের বেতন বাড়িয়ে ১৭০ টাকা করেছে।

    বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৫ টায় উপজেলার পোমরা বি.এম.স্কয়ার কমিউনিটি সেন্টারে পোমরা ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আ. লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ইদ্রিচ আজগর এসব কথা বলেন।

    তিনি আরও বলেন, একজন শ্রমিকের বেতন ছিলো ১০ হাজার এখন সে শ্রমিকের বেতন তার ডাবল ২০ হাজার টাকা হয়েছ। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ রাঙ্গুনিয়ার সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে যেসব এলাকায় রাস্তা ছিলো না, সেই এলাকায় রাস্তা হয়েছে। যেসব এলাকায় কালভার্ট ছিলো না, সেসব এলাকায় কালভার্ট নির্মান হয়েছে। পাশাপাশি শতাধিক বেকার সন্তানদের চাকরি দিয়ে দুমুঠো ভাত খাওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি।

    জাতীয় শ্রমিকলীগ পোমরা ইউনিয়ন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক মো. আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে উদ্বোধক ছিলেন জাতীয় শ্রমিকলীগ রাঙ্গুনিয়া উপজেলার সভাপতি বাবু রতন দাশ।

    পোমরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন মাস্টার এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আনোয়ার আজিজের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আ.লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদুল আলম চৌধুরী আইয়ুব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এমরুল করিম রাশেদ, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ফারুক আহমেদ তালুকদার, পোমরা ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি ছৈয়দুল আলম তালুকদার, উপজেলা শ্রমিকলীগ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক এসকান্দর মিয়া, প্রধান বক্তা ছিলেন উপজেলা শ্রমিকলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এস.এম সোহেল রানা।

    আরও উপস্থিত ছিলেন, পোমরা ইউনিয়ন আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহমেদ সওদাগর,  সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আসিফুল করিম সাব্বু, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মফিজুর রহমান খান প্রমুখ। 

    সম্মেলন শেষে আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে সভাপতি পদে সিরাজুল মোস্তফা ও সাধারণ সম্পাদক পদে আব্দুল আজিজকে রাখা হয়। এছাড়া সহ সভাপতি পদে নেজাম উদ্দিন বাচাকে রাখা হয়েছে।
    প্রকাশিত বুধবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad