• সর্বশেষ আপডেট

    যেখানেই বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য সেখানেই প্রতিরোধ

     

    বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য, তান্ডব ও পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে মেয়র ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এম রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করে দেশকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যেতেই বিএনপি-জামায়াত পরিকল্পিতভাবে সহিংসতা করছে। তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি গৃহকর নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে, তা সম্পূর্ণভাবে ভিত্তিহীন। নগরবাসীকে গৃহকর নিয়ে কোন ধরণের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানান।

    গতকাল বিকালে মোহরাস্ কামাল বাজার চত্বরে মোহরা যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ, যুব মহিলা লীগ আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে মেয়র এসব কথা বলেন। 

    মোহরা ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী নুরুল আমিন মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল বলেন, বিএনপি-জামায়াত পরিকল্পিতভাবে সহিংসতা করছে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও আইনশৃখলা বাহিনীর ওপর হামলা বন্ধ না হলে রাজপথে প্রতিহত করা হবে। 

    সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন বলেন, মিথ্যা কথা বলতে বলতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মিথ্যা মিছা ফখরুলে পরিণত হয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে দেশ অর্থনৈতিকভাবে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। কিন্ আমাদের উন্নয়ন বিএনপি চোখে দেখে না।

    সহ-সভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু বলেন, দেশবিরোধী অপশক্তি বিএনপি ও তার দোসররা রাজপথে আবারও কোনো অগ্নি-সন্ত্রাস, নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে রাজপথেই তার ফয়সালা হবে।
    যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বদিউল আলম বলেন, নিরপেক্ষ সরকারের কথা বলে যারা সন্ত্রাস ও বিশৃখলা সৃষ্টি করতে চায় তাদের মোকাবিলা করে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে।

    নগর আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম বলেন, শেখ হাসিনার প্রাজ্ঞ নেতৃত্বে দেশ যখন উন্নয়নের মহাসড়ক ধরে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলছে, ঠিক তখনই নানা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে দেশকে পিছিয়ে নিতে চায় বিএনপি-জামায়াত চক্র। কারণ, তারা দেখছেন শেখ হাসিনা পারেন। শেখ হাসিনাই পারবেন। 

    সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, বন ও পরিবেশ সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী। বিজিএমইএ'র প্রথম সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি দেবাশীষ নাথ দেবু, সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান আজিজ, সাংগঠনিক সম্পাদক দেবাশিষ আর্চায্য, পূর্বষোলশহর ওয়ার্ড আওয়ামীগের সভাপতি সামশুল আলম, ৬নং পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম, চান্দগাঁও ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এসরারুল হক এসরাল, মোহরা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য এস এম আনোয়ার মির্জা, হাজী আবু তাহের, নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, মোহাম্মদ ফারুক, হাসান মুরাদ চৌধুরী, আবুল হাশেম, জমির উদ্দিন, অলিদ চৌধুরী, হানিফ খান, মোহাম্মদ সেকান্দর, আবুল কাশেম বাদশা, নুরুল ইসলাম, এসকান্দর আলী, মোহাম্মদ আলম, ওমর খৈয়ম তৈয়ব, জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, শেখ আহমদ, মো. আলমগীর, আজম খান, এরশাদ আলম বিটু, রামধন দাশ, যুবলীগ নেতা জসিম উদ্দিন, তসলিম উদ্দিন, মোহাম্মদ শফি, মোহাম্মদ সরোয়ার, নুরুল আবছার খান, আয়াছ উদ্দিন, কফিল উদ্দিন, জসিম উদ্দিন, আবুল কাশেম আরজু, মোরশেদ খোকা, মো. এমরান, মো. নাছের, মো. আরমান, রানা মজুমদার ও জনি চৌধুরী। 

    স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোহাম্মদ ইছহাক, মোহাম্মদ হোসেন, শহীদুল্লাহ কায়সার, মো. ফারুক, গিয়াস উদ্দিন, যুব মহিলা লীগ নেত্রী লাকী আকতার রিংকু, চান্দগাঁও থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. নূরুন্নবী শাহেদ, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল আলম শহিদ, মোহরা ওয়ার্ড ছাত্রলীগ এর আহবায়ক মোস্তফা কামাল, যুগ্ম আহবায়ক ফয়সাল খান সিফাত। সমগ্র সমাবেশ সঞ্চালনা করেন জাফর আহমদ ও ছাত্রনেতা দেলোয়ার হোসে
    প্রকাশিত মঙ্গলবার ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad