• সর্বশেষ আপডেট

    দ্বিতীয় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

     

    রংপুরের কাউনিয়ায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) বিকালে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত ২ এর বিচারক তারিক হোসেন এই রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে পুলিশি পাহারায় রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

    মামলার বিবরণে জানা গেছে, রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার বাজেমসকুর গ্রামের আক্কাছ আলীর ছেলে আমিনুল ইসলাম বাবুল ঢাকায় একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে কাজ করতেন। সেখানে আম্বিয়া খাতুন লতার সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরে তারা বিয়ে করেন। কিছুদিন ঘর সংসার করার পর আসামি বাবুল তার স্ত্রীকে না জানিয়ে গোপনে রংপুরের বাড়িতে চলে আসেন। এরপর ২০১৬ সালের ২৫ জুলাই স্ত্রী লতা স্বামীর খোঁজে রংপুরে তার বাসায় আসেন। এসে দেখেন স্বামীর আরেকটি স্ত্রী ও সন্তান আছে।

    স্বামীর বাড়িতে অবস্থানের একদিন পর ২৬ জুলাই আম্বিয়া খাতুন লতাকে রাতে তার স্বামী ঘুমন্ত অবস্থায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে নিহত গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। এই ঘটনায় নিহতের ভাই মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে কাউনিয়া থানায় মামলা করেন। মামলায় ২৩ জনের সাক্ষ্য ও জেরা শেষে আসামিকে দোষী সাব্যস্ত করে বিচারক এই রায় ঘোষণা করেন।

    বাদীপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি নয়নুর রহমান টফি জানান, বাদীপক্ষ ন্যায় বিচার পেয়েছে। রায়ে তারা সন্তুষ্ট।
    অপরদিকে, আসামিপক্ষের আইনজীবী আবুল হোসেন জানান, তার মক্কেল ন্যায় বিচার পাননি। তিনি রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

    প্রকাশিত মঙ্গলবার ৩০ আগস্ট ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad