• সর্বশেষ আপডেট

    অনুমতি মিললেও বাংলাবান্ধা দিয়ে আসা যাওয়া করেনি কোনও পর্যটক

     

    পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে ট্যুরিস্ট (ভ্রমণ) ভিসায় আসা-যাওয়ার অনুমতি মিলেছে। নতুন ভিসা এবং বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি রুট উল্লেখ থাকলে এ স্থলবন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশে যেতে পারবেন ভ্রমণপিপাসুরা। করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দুই বছরের বেশি সময় এ স্থলবন্দর দিয়ে পর্যটক আসা-যাওয়া বন্ধ ছিল। 

    তবে বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০২২ সালের নতুন ভিসায় বৃহস্পতি ও শুক্রবার একজন পর্যটকও আসা-যাওয়া করেননি। নতুন ভিসা না পাওয়ায় পর্যটকরা যেতে পারছেন না। তবে বিজনেস ও মেডিক্যাল ভিসায় উভয়দেশেই যাতায়াত চলছে। 

    বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২০ সালের ৩০ মার্চ বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে ট্যুরিস্ট ভিসায় আসা-যাওয়া বন্ধ হয়ে যায়। তবে শর্ত সাপেক্ষে ভারত ও নেপালের শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করেছেন। ২০২১ সালের ২৬ এপ্রিল থেকে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীতে উভয়দেশের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীরা যাতায়াত করেছেন। বর্তমানে ২০২২ সালের নতুন ভিসায় যাদের বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি রুট উল্লেখ থাকবে এমন পর্যটকরা এই রুটে যাতায়াত করতে পারবেন। 

    বৃহস্পতিবার উভয়দেশের সংশ্লিষ্টদের সম্মতিতে এই সিদ্ধান্ত হয়। 
    বাংলাদেশ ও ভারতে ট্যুরিস্ট ভিসায় যাতায়াতের অনুমতি মিলেছে জানিয়ে পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী জানান, দু'দেশের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে পর্যটক আসা-যাওয়ার অনুমতি মিলেছে। নতুন ভিসা ও বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি রুট উল্লেখ সাপেক্ষে বৈধ পাসপোর্টধারীরা এই ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট ব্যবহার করতে পারবেন। 

    প্রকাশিত: শুক্রবার ০৮ এপ্রিল ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad