• সর্বশেষ আপডেট

    কিডনিজনিত রোগ নিয়ে, সচেতনতায় পার্কভিউ হসপিটালে বৈজ্ঞানিক সেমিনার অনুষ্ঠিত।

     

    পার্কভিউ হসপিটালের উদ্যোগে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কিডনি রোগকেন্দ্রিক এক  বৈজ্ঞানিক সেমিনারের আয়োজন করা হয়। এসময় বিশেষজ্ঞ চিকিৎকরা কিডনিজনিত রোগ ও ডায়ালাইসিসের বিষয়ে বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন আগত অতিথিদের মাঝে। 

    দেশে বেশিরভাগ মানুষ নিজের অজান্তে বিভিন্ন কিডনিজনিত রোগে ভুগছেন,  মানবদেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ কিডনী। শিশু থেকে শুরু করে মধ্যবয়সী ও বৃদ্ধ সবার ক্ষেত্রেই কিডনির সুস্থতা গুরুত্বপূর্ণ। চট্টগ্রামবাসীর কথা চিন্তা করে কিডনির অসুখ নিয়ে সবার মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে এই বৈজ্ঞানিক সেমিনারের আয়োজন করে পার্কভিউ হসপিটাল। 
     

    আজ ১৪ ই মার্চ সোমবার দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত  পার্কভিউ হসপিটালের কনফারেন্স হলে কিডনিজনিত রোগ নিয়ে এই বৈজ্ঞানিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।এসময় কিডনি রোগে আক্রান্ত ও কিডনি ডায়ালাইসিসের রোগীরা আগত অতিথি ডাক্তারদের কাছে কিডনি রোগের ধরণ ও প্রতিকারের উপাই জানতে বিভিন্ন প্রশ্ন করেন ডাক্তারগন তাদের প্রশ্নের উত্তর দেন। 

    পার্কভিউ হসপিটাল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডাক্তার এটিএম রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে  সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম ইউএসটিসির ( USTC) নেফ্রলজি বিভাগীয় প্রধান  প্রফেসর ডাক্তার এম এম এহতেশামুল হক। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাক্তার এহতেশামুল হক বলেন, দেশে  প্রায় দুই কোটি মানুষ কোন না কোন কিডনি রোগে আক্রান্ত। 

    এর মধ্যে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ হাজার লোক ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে জীবন যাপন করছে। আর্থিকভাবে অসচ্ছল কিডনি রোগীদের সহায়তায় এগিয়ে আসতে তিনি সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান। 

    অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি  হিসেবে উপস্থিত  ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক, (শিশু কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ)  ডাক্তার সুস্মিতা বিশ্বাস।

    আয়োজিত কিডনিকেন্দ্রিক বৈজ্ঞানিক সেমিনারে  মূল আলোচক ছিলেন পার্কভিউ হসপিটালের কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মেরিনা আরজুমান্দ এবং সহকারী অধ্যাপক  ডাক্তার রফিকুল হাসান।

    সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে ডাক্তার এটিএম রেজাউল করিম বলেন, কিডনি রোগ একটি নীরব ঘাতক। সুস্বাস্থ্যের জন্য এবং সুস্থ ভাবে জীবনযাপন করতে সুস্হ কিডনির বিকল্প নেই। অনেক কিডনি রোগ প্রতিরোধযোগ্য।

    কিডনি রোগের প্রতিরোধ ও চিকিৎসা বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

    পাশাপাশি সরকারে প্রতি আহ্বান করে  তিনি বলেন,আমাদের দেশে কিডনি ডায়ালাইসিস করতে খরচ অনেক বেশি হয় কারণ ডায়ালাইসিসের জিনিসপত্রের দাম দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে,  করোনার মহামারী আসার পর দাম বেড়েছে আরো বেশি।

    সরকার যদি কিডনি ডায়ালাইসিসের জিনিসপত্রের উপর ট্যাক্স  প্রত্যাহার করে নেই তাহলে আমাদের দেশে কিডনি ডায়ালাইসিসের খরচ অনেক কমে যাবে, স্বল্প আয়ের মানুষ কিডনি ডায়ালাইসিস করাতে পারবেন। খরচ বেশি হওয়াতে ডায়ালাইসিসের খরচের টাকা যোগাড় করতে না পারায় কিডনিজনিত রোগে মারা যাচ্ছে অনেক মানুষ। 

    তিনি আরো বলেন আমরা সরকারকে আহবান করি সরকার যেন এই বিষয়ে বিশেষ নজর দেন।চট্টগ্রামে পার্কভিউ হসপিটালও এ বিষয়ে যথাযথ গুরুত্ব দিচ্ছে। 

    সেমিনারে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন হসপিটালের ডিরেক্টর, ডাক্তার মোঃ রেজাউল করিম। সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে, উপস্থিত ছিলেন পার্কভিউ হসপিটালের জেনারবল ম্যানেজার  (জিএম) তালুকদার জিয়াউর রহমান শরীফ, মার্কেটিং ম্যানেজার জাহেদুল ইসলাম সহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ।

    প্রকাশিত: সোমবার ১৪ মার্চ ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad