Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    দেহরক্ষী নিয়ে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া সেই মেজবাহ উদ্দিন গ্রে

     ৷ 


    আগ্নেয়াস্ত্র প্রদর্শন করে ত্রাস সৃষ্টি ও জনমনে ভীতি সঞ্চার করার অভিযোগে রাজধানীর উত্তরা থেকে মো. মেজবাহ উদ্দিন সরকার ওরফে রুবেলকে (৪৪) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১। এ সময় বিদেশী পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। র‍্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (অপস্ অফিসার) নোমান আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

    তিনি জানান, র‌্যাব-১ এর সাইবার মনিটরিং সেল ভার্চুয়াল জগতে অপরাধীদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১ এর সাইবার মনিটরিং টিম সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি সন্দেহমূলক আইডি শনাক্ত করে। ওই আইডিতে আগ্নেয়াস্ত্র প্রদর্শন করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করার কিছু ছবি দেখা যায়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব-১ গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।


    পরে গতকাল বুধবার র‍্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিএমপির উত্তরা পশ্চিম থানার ৭ নং সেক্টর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে মো. মেজবাহ উদ্দিন সরকার ওরফে রুবেলকে (৪৪) গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় আসামির নিকট হতে একটি বিদেশী পিস্তল, দুটি ম্যাগজিন, ৫০ রাউন্ড গুলি, একটি পিস্তল বক্স, দুটি পিস্তল কভার, একটি পিস্তলের লাইসেন্স ও দুটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

    আসামিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাব জানায়, মো. মেজবাহ উদ্দিন সরকার ওরফে রুবেল তার দেহরক্ষী পলাতক ফারুকসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুজনকে নিয়ে উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকা, টঙ্গী এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, জনমনে ভীতি সৃষ্টি করার উদ্দেশ্যে প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন করে থাকে।

    মেজবাহ এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য অস্ত্র প্রদর্শন করার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার ব্যক্তিগত আইডিতে আপলোড করে বলেও জানায় র‍্যাব।

    এ ছাড়া মেজবাহ অবৈধভাবে অস্ত্রসহ তিনজন দেহরক্ষী নিয়োগ করে। তার দেহরক্ষীরা পলাতক। তাদেরকে নিয়ে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে সে অস্ত্র প্রদর্শন করে আসছিল। আসামির বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানিয়েছে র‍্যাব।


    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad