Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ব্যাংক ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো ৪ জঙ্গি

      

    ময়মনসিংহে গ্রেফতার নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) চার সদস্য ব্যাংকসহ বেশকিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাব-১৪ এর আকুয়া কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।

    এর আগে শনিবার ভোর ৫টার দিকে নগরীর খাগডহর এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে ‌বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। পরে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড গুলি, আটটি বোমা সদৃশ বস্তু, চারটি ব্যাগ ও দরজা-জানালা ভাঙার সরঞ্জামাদিসহ চার জনকে গ্রেফতার করা হয়।

    খন্দকার আল মঈন বলেন, জেএমবির কেন্দ্রীয় একজন শীর্ষ নেতার নির্দেশে টাঙ্গাইল, জামালপুর ও ময়মনসিংহে অবস্থান নিয়ে দীর্ঘদিনের প্রশিক্ষণ শেষ করে তারা। পরে ডাকাতির লক্ষ্যে জামালপুর থেকে ময়মনসিংহ সদরের খাগডহরের ঢোলাদিয়ার ব্রহ্মপুত্র নদে ইঞ্জিনচালিত নৌকাযোগে আসে। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ময়মনসিংহে গ্রেফতার নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) চার সদস্য ব্যাংকসহ বেশকিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাব-১৪ এর আকুয়া কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।

    এর আগে শনিবার ভোর ৫টার দিকে নগরীর খাগডহর এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে ‌বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। পরে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড গুলি, আটটি বোমা সদৃশ বস্তু, চারটি ব্যাগ ও দরজা-জানালা ভাঙার সরঞ্জামাদিসহ চার জনকে গ্রেফতার করা হয়।

    খন্দকার আল মঈন বলেন, জেএমবির কেন্দ্রীয় একজন শীর্ষ নেতার নির্দেশে টাঙ্গাইল, জামালপুর ও ময়মনসিংহে অবস্থান নিয়ে দীর্ঘদিনের প্রশিক্ষণ শেষ করে তারা। পরে ডাকাতির লক্ষ্যে জামালপুর থেকে ময়মনসিংহ সদরের খাগডহরের ঢোলাদিয়ার ব্রহ্মপুত্র নদে ইঞ্জিনচালিত নৌকাযোগে আসে। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ব্রহ্মপুত্র নদে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব-১৪ এর সদস্যরা।

    তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে তারা জেএমবির সক্রিয় সদস্য বলে জানিয়েছে। ময়মনসিংহের কয়েকটি ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহ করে এবং টার্গেট নির্ধারণ করে ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়। ডাকাতির কাজে ১০-১৫ জনের একটি দল গঠন করে। ময়মনসিংহে ডাকাতির পর লুটের মালামাল আরেকটি জঙ্গি গ্রুপের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। 

    এই র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, ডাকাতির নেতৃত্বে ছিল গ্রেফতার জুলহাস। তার নেতৃত্বে কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। দলের সদস্যদের ওয়াচম্যান, হাউজ ও লক ব্রেকিং, নিরাপত্তা প্রদান ও লুটতরাজসহ বিভিন্ন দায়িত্ব বণ্টন ও বিভাজন করা হয়। রোবায়েদের দায়িত্ব ছিল সিসিটিভি ও তথ্য প্রযুক্তির বিষয় দেখভালের। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শেষে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

    তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে তারা জেএমবির সক্রিয় সদস্য বলে জানিয়েছে। ময়মনসিংহের কয়েকটি ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহ করে এবং টার্গেট নির্ধারণ করে ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়। ডাকাতির কাজে ১০-১৫ জনের একটি দল গঠন করে। ময়মনসিংহে ডাকাতির পর লুটের মালামাল আরেকটি জঙ্গি গ্রুপের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। 

    এই র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, ডাকাতির নেতৃত্বে ছিল গ্রেফতার জুলহাস। তার নেতৃত্বে কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। দলের সদস্যদের ওয়াচম্যান, হাউজ ও লক ব্রেকিং, নিরাপত্তা প্রদান ও লুটতরাজসহ বিভিন্ন দায়িত্ব বণ্টন ও বিভাজন করা হয়। রোবায়েদের দায়িত্ব ছিল সিসিটিভি ও তথ্য প্রযুক্তির বিষয় দেখভালের। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শেষে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

    প্রকাশিত: শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad