Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    চকরিয়া উপজেলায় পানিবন্দি ১৮ ইউনিয়নের ৫ লাখ মানুষ

      


    জসিম তালুকদার (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: চকরিয়া উপজেলায় নদীর পানিতে ভয়াবহ বন্যার মুখে পড়েছে চকরিয়ার প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ। উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন এবং একটি পৌরসভার প্রায় ৮০ শতাংশ এলাকাই এখন পানির নিচে। কোথাও কোথাও পানির উচ্চতা ১০ ফুট।

    এরই মধ্যে হাজার হাজার মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে চলে গেছে। তলিয়ে গেছে প্রায় ২০ হাজার একর চিংড়িঘের ও পাঁচ শতাধিক পুকুর। 

    যোগাযোগ ব্যবস্থাও ভেঙে পড়েছে। দুই দিন ধরে বন্ধ রয়েছে বিদ্যুৎ সংযোগ। চকরিয়া পৌরসভা ছাড়াও কাকারা, সুরাজপুর-মানিকপুর, বমুবিলছড়ি, লক্ষ্যার চর, ফাঁসিয়াখালী, কৈয়ারবিল, হারবাং, বরইতলী, ডুলাহাজারা, খুটাখালী, চিরিঙ্গা, সাহারবিল, পূর্ব বড় ভেওলা, বিএম চর, কোনাখালী, ঢেমুশিয়া, পশ্চিম বড় ভেওলা, বদরখালী, পেকুয়া সদর, বারবাকিয়া, শীলখালী, রাজাখালী এবং চট্টগ্রাম  বাঁশখালী উপজেলার টৈটং ইউনিয়নের অনেক গ্রাম বন্যার কবলে পড়েছে।

    চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, ‘উপজেলার ৮০ শতাংশ এলাকা বানের পানিতে ভাসছে। এরই মধ্যে আমরা ত্রাণ বিতরণ শুরু করেছি।’


    প্রকাশিত: শুক্রবার ৩০ জুলাই, ২০২১

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad