Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: ছাত্র অধিকার পরিষদের ২ নেতা রিমান্ডে!



    দিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীর করা ধর্ষণ মামলার দুই আসামি ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম ও সংগঠনটির ঢাবি শাখার সহ-সভাপতি নাজমুল হুদার ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

    সোমবার (১২ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোরশেদ আল মামুন ভূঞা শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

    সূত্র জানায়, এদিন কোতোয়ালি থানার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামিদের আদালতে হাজির করেন একই সঙ্গে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। আসামিপক্ষের আইনজীবীর রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষ বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

    রোববার রাতে রাজধানী থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) রাজীব আল মাসুদ বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ তুলে ঢাবির এক ছাত্রীর দায়ের করা মামলার চার নম্বর আসামি মো. সাইফুল ইসলাম ও পাঁচ নম্বর আসামি মো. নাজমুল হুদাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

    উল্লেখ্য, ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে গত ২০ ও ২১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর লালবাগ ও কোতোয়ালি থানায় ঢাবির এক ছাত্রী পৃথক দুটি মামলা করেন। এতে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর এবং ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনসহ ছয় জনকে আসামি করা হয়। লালবাগ থানার মামলায় সাইফুল চার নম্বর ও নাজমুল হুদা পাঁচ নম্বর আসামি।

    গতকাল রবিবার রাতে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর এক ফেসবুক লাইভে জানান, ডিবি পুলিশ পরিচয়ে নাজমুল হুদাকে মগবাজার থেকে, সাইফুল ইসলামকে চানখারপুল থেকে এবং ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক সোহবার হোসেনকে প্রেসক্লাব থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে।


    প্রকাশিত: সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০

    Post Top Ad