Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    কুটুমবাড়ি রেস্তোরায় ফ্রিজে পঁচা মাংস মেয়াদ উত্তীর্ণ ফিরনি, জরিমানা ৪০ হাজার।

    Kutumbari Restaurant

    মাহমুদ আরাফ মেহেদিঃ- ম্যানেজার থেকে টেবিল বয়, বাবুর্চি থেকে সাধারণ কর্মচারী কেউই স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। কারোই মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পাওয়া যায়নি। স্বাস্থ্যবিধি মানার যেন কোনো বালাই নেই।

    ফ্রিজে পঁচা মাছ ও মাংসের সাথে অপরিচ্ছন্ন ভাবে  রাখা হয়েছে আটার খামি ও বিভিন্ন মশলা।
    ফ্রিজে রাখা নিজেদের উৎপাদিত ফিরনি কতদিন আগে বানানো হয়েছে কিংবা কতদিন খাওয়া যাবে তার কোনো নির্দিষ্ট তারিখ নেই।
    ভয়াবহ এমন  চিত্র নগরীর ওয়াসা মোড়ের কুটুমবাড়ী রেস্তোঁরায়।

    আজ বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনাকালে উপরোক্ত চিত্রটি দেখতে পান।
    পরে এসব অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে ৪০ হাজার জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আলী হাসান।
    এদিকে একই এলাকায় অবস্থিত স্বনামধন্য কুপার্স ও ডুলছে নামের দু’টি বেকারিতেও অভিযান চালায় জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

    অভিযানে দেখা যায়-প্রতিষ্ঠান দু’টি বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউটের (বিএসটিআই) লাইসেন্স ছাড়া মিল্ক ব্রেড উৎপাদন ও বাজারজাত করছে।

    এছাড়াও বিএসটিআই’র লোগো ‘৩৮৩’ যা বিস্কুটের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য সেটা কেকে লাগিয়ে বিক্রি করছে।
    এসব অপরাধের জন্য প্রতিষ্ঠান দু’টিকেও ২৫ হাজার টাকা করে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আলী হাসান।

    অভিযান পরিচালনা কালিন সাংবাদিকদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আলী হাসান বলেন, “স্বাস্থ্যবিধি মানছিলেন  না ওয়াসা মোড়ে অবস্থিত এই কুটুমবাড়ী রেস্তোঁরা যে কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া কুপার্স ও ডুলছে নামের দু’টি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। প্রতিষ্ঠান দু’টি বিএসটিআই-এর লাইসেন্স ছাড়া মিল্ক ব্রেড উৎপাদন ও বাজারজাত করছিল।

    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই, ২০২০

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad