Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    নোয়াখালীতে গুলিবিদ্ধ ইউপি সদস্যের মৃত্যু


    মোঃ ইব্রাহিম, নোয়াখালীঃ- নোয়াখালী সদর উপজেলার আন্ডারচর ইউপিতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত ইউপি সদস্য মো. হোরন মারা গেছেন। রোববার সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত মো. হোরন উপজেলার আন্ডারচর ইউপির ৩ নম্বর ওয়ার্ড পশ্চিম মাইজচরা গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে। তিনি ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ছিলেন।নিহতের বড় ভাই মো. ইউসূফ জানান, গত দুই-তিন বছর ধরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ও দলীয় পদ-পদবি নিয়ে আন্ডারচর ইউপির পশ্চিম মাইজচরা গ্রামের গোরফান চৌকিদারের ছেলে সন্ত্রাসী মো. ইউসূফের সঙ্গে তার ভাই ইউপি সদস্য মো. হোরনের গ্রুপিং চলে আসছিলো। ওই গ্রুপিংকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার রাত পৌনে ১০টার দিকে স্থানীয় একটি বাজার থেকে সহযোগী মুসলিমসহ মোটরসাইকেল যোগে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিল হোরন। পথে হাজী আব্দুল ওহাব বিদ্যালয় এলাকায় স্থানীয় গোরফান চৌকিদারের ছেলে সন্ত্রাসী ইউসূফে নেতৃত্বে আমিনুল হকের ছেলে রমিজ উদ্দিন, হারুন মোল্লার ছেলে সাজু, আজাদ হোসেন সুজনসহ ৮-১০জন সন্ত্রাসী তাদের পথ গতিরোধ করে দুইজনকে নামিয়ে পিটিয়ে জখম করে। পরে সন্ত্রাসীরা হোরনকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে। গুলির শব্দ পেয়ে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন হোরন মেম্বারকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে দ্রুত নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসকেরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার সকালে তিনি মারা যান।

    সুধারাম মডেল থানার ওসি মো. নবীর হোসেন ইউপি সদস্যের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গুলিবিদ্ধের ঘটনার পরের দিনই পাঁচ ব্যক্তির নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন নিহতের ভাই  মো. ইউসূফ। অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

    প্রকাশিত: রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০

    Post Top Ad