Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    বগুড়ায় নতুন করে আরো একজন নার্স করোনা পজিটিভ

    মনিরুজ্জামান, বগুড়া প্রতিনিধি: তিনদিন আগে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনে স্বামীকে বাসা ছাড়তে বাধ্য করা বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের সেই নার্সও এবার করোনা পজিটিভ হলেন। এ নিয়ে বগুড়ায় করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯ জনে। 

    বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুস্তাফিজুর রহমান তুহিন জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টায় আক্রান্ত ওই নার্সের তথ্য আমাদের হাতে আসে। শরীরে করোনার কোন উপসর্গ না থাকায় ওই নারীকে বাসায় রেখেই চিকিৎসা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

    এদিকে করোনায় আক্রান্ত ওই নার্সকে নিয়ে বিপদে পড়েছেন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। স্বামীর মাধ্যমে করোনায় আক্রান্ত হওয়া ওই নার্স এরই মধ্যে ওই হাসপাতালে কর্মরত একাধিক নার্সসহ অন্যান্য স্টাফদের সংস্পর্শে গেছেন। বিষয়টি জানার পর বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে খোঁজ নিয়ে ৪জন নার্স এবং ১জন ক্লিনারকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছেন।

    এর আগে ৩০ শে এপ্রিল আদমদীঘি উপজেলায় একজন ২৮ এপ্রিল শাজাহানপুর উপজেলায় ১ জন, ২৫ এপ্রিল বগুড়া সদরের চেলোপাড়া ও চকফরিদে ২ জন ও ২৩ এপ্রিল রাতে বগুড়ার শিবগঞ্জ ও গাবতলী উপজেলায় ২ জনের করোনায় আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়। তার আগে ২২ এপ্রিল রাতে ৭ জনের করোনায় আক্রান্তের ব্যাপারে সিভিল সার্জন অফিস থেকে জানানো হয়। এছাড়াও ২১ এপ্রিল রাতে সারিয়াকান্দি ও সোনাতলার একজন নারীসহ ৩ জনের করোনা পজেটিভ আসে। তারও আগে আদমদীঘি উপজেলার ২ জনের করোনা পজেটিভ সনাক্ত করা হয়। প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি মোকাবেলায় গত ২১ এপ্রিল বগুড়াকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।


    বগুড়া সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের  পিসিআর ল্যাবে মোট ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে বগুড়ার ১২৪টি এবং বাকি ৬৪টির মধ্যে ৬৩টি জয়পুরহাটের এবং একটি সিরাজগঞ্জের। এসব নুমনার মধ্যে শুধু বগুড়ার একটিই পজিটিভি এসেছে বাকিগুলো নেগেটিভ।


    প্রকাশিত: শনিবার, ০২ মে, ২০২০

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad