Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    করোনোর হটস্পট থেকে ব্যারাকে ফেরায় আতঙ্কে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা!


    শরীফ হায়দার শিবলু; বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া মরণঘাতী করোনো ভাইরাসের কারনে বাংলাদেশে সরকারি সাধারণ ছুটিতে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকার কারনে চট্টগ্রাম রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী (আর,এন,বি) বিভাগের দায়িত্ব প্রাপ্ত সিআই আমানউল্লাহর ঘুষ নিয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কিছু সদস্যদের ছুটি মাধ্যমে বড় ধরনের অনিয়মের কারনে আতঙ্ক গ্রস্ত হয়ে পড়েছেন রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যারাকে অবস্থান করা অন্য নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা!

    রেলওয়ে নিরাপত্তা বিভাগের দায়িত্বে নিয়োজিত আর, এন,বির সদস্যদের থেকে ৫ হাজার টাকা করে ঘুষ নিয়ে ৫০ থেকে ৫৫,জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যকে অফিসিয়াল  নিয়মবহির্ভূত ভাবে গত (১ এপ্রিল) ছুটি দিয়েছেন নিরাপত্তা বাহিনীর সিআই আমানউল্লাহ।
    সরকারি সাধারণ ছুটির কারনে সারাদেশে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকায় এই অপকর্মে জড়িয়ে পড়েন তিনি,
    তার সাথে এই অপকর্মে জড়িত রয়েছেন, পোস্টিং হাবিলদার রুমি।
    একই অনিয়মে জড়িত সিজিপি ওয়াই এবং লাকসাম সার্কেল ও!
    সিজিপি ওয়াইতে জড়িত পোস্টিং হাবিলদার শাহিন আর লাকসাম সার্কেলে জড়িত সিআই সালাউদ্দিন আহমেদ।

    অনুসন্ধানে জানাজায়, সারাদেশে সরকারি সাধারণ ছুটির কারনে সারাদেশের সাথে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের দায়িত্ব কমে যাওয়ার কারনে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর এসব কর্মকর্তা এই অনিয়মে জড়িয়ে পড়ে।
    রেলওয়ে নিরাপত্তা বিভাগের আর,এন,বির সদস্যদের কাছ থেকে ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে সম্পূর্ণ নিয়ম বহির্ভূত ভাবে অফিসিয়ালি ডকুমেন্টস ছাড়াই এই ছুটি প্রধান করেন সি,আই, আমানউল্লাহ সহ সংশ্লিষ্ট রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তারা!
    যদিও প্রশাসনিক বিভাগের কর্মকর্তা ও সদস্যের দেশের যেকোন দূর্যোগের সময় সরকারি ছুটির নিষিদ্ধ ও যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় তারা নিজ কর্মস্থলে উপস্থিত থাকতে হয়, কিন্তু রেলওয়ের প্রশাসনিক বিভাগের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন!

    এদিকে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের তালিকা দেওয়ার জন্য চিঠি আসার পর অনিয়মে জড়িত কর্মকর্তারা ছুটিতে থাকা সদস্যদের কর্মস্থলে আসার জন্য ফোন করার পর কয়েকজন সদস্য নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যারাকে গত (২২ এপ্রিল) এসে পৌছানোর কারনে আতঙ্ক গ্রস্ত হয়ে পড়েছে ব্যারাকে আগ থেকে অবস্থানরত আর,এন,বির অন্য সদস্যরা!
    কারন ছুটিতে যাওয়া নিরাপত্তা বাহিনীর এসব সদস্যদের বাড়ী দেশের করোনো ভাইরাসের হটস্পট হিসাবে প্রকাশ পাওয়া নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, নরসিংদী ও চট্টগ্রাম সাতকানিয়া সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায়।

    বর্তমানে ছুটিতে থাকা সদস্যদের মধ্যে ব্যারাকে এসে পৌছেছেন হাবিলদার- রবিউল, হাবিলদার আক্তার হোসেন, সিপাহী বায়জিদ ও সিপাহী সোহেল তারা বর্তমান অবস্থান করছেন চট্টগ্রাম বটতলি রেলওয়ে স্টেশনের নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যারাকে।
    বাকি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা কর্মস্থলে আসার পথে রয়েছেন।

    এদিকে ঘুষ নিয়ে ছুটি দেওয়ার সুবাদে ছুটিতে থাকা সদস্যদের সরকারি দেওয়া বৈশাখী ভাতা ও আত্মসাৎ করেছেন অনিয়মে জড়িত কর্মকর্তারা!

    বর্তমানে রেলওয়ের নিরপত্তা বাহিনীর ব্যারাকে থাকা সদস্যরা করোনা ভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আতঙ্ক ভুগছেন!

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েকজন সদস্য বলেন, আমরা বর্তমানে বড় ধরনের আতঙ্কের মধ্যে আছি, আমাদের উর্ধতন কর্মকর্তাদের অপকর্মের ফল ভোগ করতে হবে আমাদেরকে!

    ছুটিতে থাকা নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েকজন সদস্যের নাম এই প্রতিবেদকের হাতে এসে পৌঁছেছে, তারা হলেন -
    নায়েক- জাফর আহমেদ, হাবিলদার- শাহীন, হাবিলদার - রবিউল, হাবিলদার - আক্তার হোসেন।
    আর ছুটিতে থাকা সিপাহীদের মধ্যে সিপাহী - আব্দুল রহিম, তানজিদ,এহসান হাবিব, মামুন, মাহমুদুল হাসান, মিঠুন কর্মকার, সাইফুল ইসলাম, আব্দুল কাদের, মাহফুজর রহমান, শামসুল আলম, সোহেল, ইমরুল, নুর আলম, ও আলমগীর, রিপন শেখ।

    এসব অনিয়মের ব্যাপারে জানতে চাইলে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সিআই আমানউল্লাহ বলেন, হ্যাঁ অনেকেই ছুটিতে আছে। ছুটি পাওয়া আমাদের অধিকার।
    তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আরও বলেন অনেকেই ছুটিতে গেছেন এবং কেউ কেউ চলেও আসছেন।
    হাবিলদার আক্তার হোসেন সরকারি সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর সিলেটের বাড়িতে গেলেও ২২,শে এপ্রিল কর্মস্থলে ফিরে এসে ব্যারাকে অবস্থান করছেন বলে তিনি জানান।

    আর,এন,বি বিভাগের এই কর্মকর্তাকে এই প্রতিবেদকের পক্ষ থেকে দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে বাড়ি থেকে ফিরে নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যারাকে এসে অবস্থান করার আগে কোন পরিক্ষা বা বাকি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের থেকে দুরত্ব বজায় আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, না কোন পরিক্ষা হয়নি সিলেট থেকে ফেরত হাবিলদার আক্তার সহ যারা এসেছেন তারা ব্যারাকেই আছে।

    ছুটিতে থাকা সকল নিরাপত্তা বাহিনী নায়েক, হাবিলদার ও সিপাহীদের ছুটিতে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন যারা বরিশালে গিয়েছে তারা বরিশাল লকডাউনের কারনে আসতে পারছেনা।

    দেশের দুর্যোগ মূহুর্তে প্রশাসনিক বিভাগের লোকজন যখন খুশী তখন ছুটিতে যেতে পারে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ছুটি পাওয়ার অধিকার আমাদের আছে।
    এবং সরকারি ভাবে আমাদের কাছে কোন নির্দেশনা ও আসেনি যে আমরা ছুটিতে যেতে পারবো না।

    এদিকে বাড়ি থেকে এসে দুরত্ব না মেনে ও শারীরিক পরিক্ষা না করে নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যারাকে হাবিলদার আক্তার হোসেন, হাবিলদার রবিউল, সিপাহী বায়জিদ ও সোহেল বাড়ি থেকে এসে একই রুমে অবস্থান করার কারনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে ব্যারাকে আগে থেকে অবস্থান করা নিরাপত্তা বাহিনী সদস্যদের মধ্যে।

    প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২০

    Post Top Ad