Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    বাগমারায় রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে পুলিশ


    মুকুল হোসেন, বাগমারাপ্রতিনিধি: পবিত্র মাহে রমজানে বাগমারা উপজেলার কোন ব্যবসায়ী যেন অহেতুক দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি না করে, সে ব্যাপারে বাজার নিয়ন্ত্রণে কাজ করে চলেছে জেলা পুলিশ। এ লক্ষ্যে আজ বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) উপজেলার মাদারীগঞ্জ ও মোহনগঞ্জ হাট-বাজার পরিদর্শন করেছেন রাজশাহী সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব।

    বাগমারা থানা পুলিশের সার্বিক সহযোগিতায় হাট-বাজার পরিদর্শনকালে চলমান করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচারও চালিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

    কোন ব্যবসায়ী রমজানকে পুঁজি করে দ্রব্যের মূল্য বেশি নেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশকে জানানোর অনুরোধ করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব। এসময় প্রতিটি দোকানে মূল্য তালিকা টানানো কথা বলেন তিনি। মূল্য তালিকার অধিক যেন দাম না নেয়া হয়, সে বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সতর্ক করেন তিনি।

    এছাড়া ঢাকাসহ আশপাশের জেলা থেকে যে সকল ব্যক্তি নিজ নিজ এলাকায় এসেছে, তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ প্রদান করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব বলেন, সার্বিক পরিস্থিতিতে প্রশাসনের কঠোর হওয়া ছাড়া কোন বিকল্প নেই।

    বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান, সেকেন্ড অফিসার এসআই মনিরুল ইসলাম সহ জেলা ও ডিবি পুলিশের সদস্যরা এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের সাথে ছিলেন।

    এদিকে, অকারণে কেউ যেন বাজারে জনসমাগম না ঘটায় সেজন্য বার বার মাইকিং করা হয়। মোহনগঞ্জ এবং মাদারীগঞ্জ হাটে জেলা পুলিশের পাশাপাশি বাগমারা থানা পুলিশের হ্যান্ডমাইকে এমন প্রচারের দৃশ্য দেখা যায়। এতে হাট-বাজারে আসা অনেকেই সচেনত হয়ে বাড়ি ফিরে যান।

    অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন দেব বলেন, পবিত্র মাহে রমজানের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসায়ীরা যেন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি না করে, সে বিষয়ে তাদেরকে অবহিত করা হয়েছে। অন্যদিকে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে জেলা পুলিশ, জেলা ডিবি এবং বাগমারা থানা পুলিশ কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। আমরা জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছি।



    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২০

    Post Top Ad