Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    করোনা ভাইরাসঃ মৃতের সংখ্যা প্রায় ৫০০


    চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৪৯০ ছাড়িয়ে গেছে। হংকংয়ে একজন এই ভাইরাসে মারা যাওয়ার পর সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের দুটি বিমান সংস্থা তাদের ফ্লাইট স্থগিত করেছে। জাপানের একটি ক্রুজ শিপকে কুয়ারেন্টাইন বা বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছে। ওই জাহাজে ১০ জনের দেহে করোনা ভাইরাস পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন বলেছে, এদিন মারা গেছেন কমপক্ষে ৬৫ জন। এ নিয়ে ওইদিন মৃতের সংখ্যা দাঁড়ায় ৪৯০। এর মধ্যে বেশির ভাগই উহান শহরের। এই শহর থেকেই ডিসেম্বরে ছড়িয়ে পড়ে করোনা ভাইরাস। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

    gifs website

    উহান শহর সফর করে হংকং ফিরে মারা গেছেন ৩৯ বছর বয়সী এক যুবক। এ ছাড়া চীনের বাইরে গত সপ্তাহে ফিলিপাইনে মারা গেছেন আরো একজন। তিনিও উহান সফরে গিয়েছিলেন। সারা চীনে নতুন করে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কমপক্ষে ৩৮৮৭ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ হাজার ৩২৪।

    করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা এবং প্রাণহানি বাড়তে থাকায় বিশ্বব্যাপী জরুরি অবস্থা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এরপর এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশগুলো ব্যাপক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়।

    চীন থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। ফলে কোনো কোনো দেশ চীনা নাগরিকদের নিজ দেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে মাত্র ৩৫ দিনেই চীনের অর্থনীতিতে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশটির সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ রয়েছে এমন দেশের অর্থনীতিও ঝুঁকিতে পড়েছে। বাংলাদেশের জন্য এই ঝুঁকি অনেকের চেয়ে বেশি।

    বাংলাদেশের মোট আমদানির ২৫ শতাংশের বেশি হয়ে থাকে চীন থেকে। আবার ১০০ কোটি ডলারের মতো রপ্তানিও হয়ে থাকে দেশটিতে। প্রায় এক হাজার ৬০০ কোটি ডলারের ব্যবসা রয়েছে চীনের সঙ্গে। এ ছাড়া বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ও বেসরকারি খাতে শত শত চীনা নাগরিক কাজ করছেন। যাদের একটি অংশ ছুটি কাটাতে দেশে গিয়ে আর ফিরতে পারছেন না। ফলে এসব প্রকল্প এবং শিল্পকারখানা বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমও ব্যাহত হচ্ছে।


    প্রকাশিত: বুধবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

    Post Top Ad