Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ইরানের মিসাইল হামলায় কোনো মার্কিন সেনা মারা যায়নিঃ ট্রাম্প




    হোয়াইট হাউজ থেকে দেয়া টেলিভিশন বক্তৃতায় মি. ট্রাম্প বলেন, বুধবার ভোররাতের হামলায় কোনো আমেরিকান বা ইরাকীর প্রানহানী হয়নি। ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে খুবই সামান্য।এর আগে ওই হামলায় ৮০ জন নিহত হয় বলে দাবি করে ইরান।

    হামলার বদলা নেওয়ার কোনো হুমকি দেননি মি ট্রাম্প।

    বদলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ইরান যদি পারমানবিক অস্ত্র অর্জনের চেষ্টা বাদ দেয় এবং, তার ভাষায়, সন্ত্রাসের পথ ত্যাগ করে, তাহলে শান্তি স্থাপনেও তিনি প্রস্তুত।

    তবে সাংবাদিকদের সামনে তার সংক্ষিপ্ত বিবৃতির শুরুতেই মি. ট্রাম্প বলেন তিনি যতদিন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট থাকবেন ইরানকে পারমানবিক অস্ত্র অর্জন করতে তিনি দেবেন না।

    এ দিকে ইরান জানিয়েছে, গত সপ্তাহে শীর্ষ ইরানি জেনারেল কাশেম সোলাইমানিকে গুপ্তহত্যার প্রতিবাদে তারা ওই হামলা চালিয়েছে।

    মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, যুক্তরাষ্ট্র শিগগিরই ইরানের ওপর অতিরিক্ত আর্থিক ও অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে। ইরানের আচরণ পরিবর্তন না হওয়া পর্যন্ত তা বলবৎ থাকবে।

    মধ্যপ্রাচ্যের তেল-গ্যাসের প্রসঙ্গ টেনে ট্রাম্প বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের তেল-গ্যাসের তাদের প্রয়োজন নেই। তারা এখনই তেল-গ্যাস উৎপাদনে শীর্ষে আছে।

    ট্রাম্প তাঁর ভাষণে বলেন, ইরান সম্ভবত গুটিয়ে গেছে। অবশ্য এটা সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের জন্য ভালো এবং এটি বিশ্বের জন্য খুব ভালো কিছু। ট্রাম্প দাবি করেন, ২০১৩ সালে অকার্যকর পারমাণবিক চুক্তি সইয়ের পর ইরানের যুদ্ধবিগ্রহ মনোভাব বেড়েছিল। ২০১৫ সালে চুক্তি সই হয়েছিল।


    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৯ জানুয়ারি, ২০২০

    Post Top Ad