Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ইহুদিবাদী সৈন্যদের আচরণে ক্ষিপ্ত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ



    ইসরাইলি নিরাপত্তা রক্ষীদের ধমক দিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। পুরনো জেরুজালেমের একটি গির্জায় প্রবেশের সময় ইহুদিবাদী সৈন্যদের আচরণে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন প্রেসিডেন্ট। এ সময় তাদের ‘বেরিয়ে যাও’ বলে ধমক দেন তিনি। গতকাল বুধবার জেরুজালেমের সেইন্ট অ্যান চার্চে ফরাসী প্রেসিডেন্ট ও তার সফরসঙ্গীদের প্রবেশের সময় এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় একটি গণমাধ্যম।

    ১৮৫৬ সালে ফরাসী সম্রাট তৃতীয় নেপোলিয়নের হাতে অটোমানরা উপহার দেওয়ার পর থেকে জেরুজালেমের সেন্ট চার্চ অফ সেন্ট অ্যানি শহরটিতে ফরাসি ত্রিবর্ণ পতাকা উড়ছে।

    তবে ম্যাক্রোঁ ও তার প্রতিনিধিরা গির্জাটিতে প্রবেশের সময় ইসরাইলি পুলিশ ও স্থানীয় নিরাপত্তা রক্ষীরা সফরকারীদের অগ্রবর্তী দলকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে নিজেরাই গির্জায় আগে প্রবেশের চেষ্টা করে। এতে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ক্ষেপে যান বলে জানায় ফরাসী গণমাধ্যমগুলো। এ সময় ইসরাইলি নিরাপত্তা রক্ষীদের উদ্দেশ্যে উত্তেজিত ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘সবাই নিয়মগুলো জানে। আমার সামনে আপনারা যা করেছেন, তা আমি পছন্দ করিনি।’


    উত্তেজিত হয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘বেরিয়ে যাও… বের হও।’ ভিডিওতে ক্ষিপ্ত ফরাসী প্রেসিডেন্টকে এমনটাই বলতে শোনা গেছে। ম্যাক্রোঁ বলেন, শতকের পর শতক যে নিয়ম চলছে, আমার বেলায় তার ব্যতিক্রম হবে না বলে দিচ্ছি। ঠিক আছে? সুতরাং সবাই, নিয়মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হন। ঘটনার বিবৃতি দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথাও বলেছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, নিরাপত্তা দলগুলোর মধ্যে সাময়িক উত্তেজনা দেখা দিয়েছিল, আমি সেটি ঠিক করার চেষ্টা করেছি।

    পরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বললে ম্যাক্রন বলেছিলেন যে ঘটনাটি সুখকরভাবে শেষ হয়েছে এবং তিনি ইস্রায়েলি সুরক্ষা কর্মকর্তাদের সাথে হাত মিলিয়েছিলেন।

    ইস্রায়েলি পুলিশ জানিয়েছে যে ম্যাক্রন যখন গির্জার কাছে পৌঁছেছিলেন তখন রাষ্ট্রপতি প্রবেশের বিষয়ে ইস্রায়েলি ও ফরাসী নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের মধ্যে "আলোচনা হয়েছিল"।

    পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, "রাষ্ট্রপতি ও প্রতিনিধিদল পরিদর্শন শেষ করার পরে, তারা ঘটনার বিষয়ে ক্ষমা চেয়েছিলেন এবং সুরক্ষা কর্মীদের সাথে হাত মিলিয়েছিলেন,।

    ইস্রায়েলি সরকারের একজন মুখপাত্র শিন বেট অভ্যন্তরীণ সুরক্ষা সংস্থার পক্ষে তাত্ক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য করেননি।

    ফরাসী কূটনীতিকরা সতর্ক করেছেন যে তারা ম্যাক্রনের ভ্রমণের সময় দুর্ঘটনার জন্য খুব অল্প সুযোগ ছেড়ে যেতে চান।


    প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০

    Post Top Ad