Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    ইভিএমে নির্বাচন না করতে সুপ্রিম কোর্টে রিট



    আরপিও- ১৯৭২ এর সংশোধন করে ২০১৮ সালে করা ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে নির্বাচনের বিধানের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। একইসঙ্গে ইভিএমের মাধ্যমে কোনো নির্বাচন না করার নির্দেশনা জারির আর্জি জানানো হয়েছে।

    বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ এ রিট করেন।

    পরে তিনি এক লিখিত বক্তব্যে জানান, ওই আইন (ইভিএম সংক্রান্ত আইন) সংসদে পাস হয়নি এবং আরপিও ধারা ২৬-এ অনুযায়ী ইভিএম বাধ্যতামূলক (ম্যান্ডেটরি) নয়। সুতরাং এ আইন জরুরি ছিল না। এটি সংবিধানের ৯৩ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। কারণ অনুচ্ছেদ ৯৩ কেবলমাত্র জরুরি প্রয়োজনে সংসদ না থাকলে অধ্যাদেশ জারি করতে পারে। ২০১৮ সালে সংসদ বহাল ছিল এবং ইভিএম জরুরি ছিল না। ২০১৮ সালের নির্বাচনে মাত্র ৬টিতে ইভিএম চালু ছিলো। কিন্তু ফেয়ার নির্বাচন হয়নি।

    ‘এছাড়া সংবিধানের ৬৫ অনুচ্ছেদে এবং অন্যান্য আইনে জনগণের সরাসরি গোপন ব্যালটের মাধ্যমে ভোট দেওয়ার বিধান আছে। কিন্তু যন্ত্রের মাধ্যমে নয়। যন্ত্রের মাধ্যমে প্রকৃত ভোটার যাচাই-বাছাই করা যেতে পারে। কিন্তু ভোট ব্যালটের মাধ্যমেই সরাসরি দিতে হবে। ইউএসএ, ইউকেসহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক দেশে ইভিএম নেই। ওই আইন পাস করতে জনগণের গণভোটও নেওয়া হয়নি।’

    রিট আবেদনে আইন সচিব, কেবিনেট সচিব, রাষ্ট্রপতির সচিবালয়ের সচিব ও নির্বাচন কমিশনকে বিবাদী করা হয়েছে।

    প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৯ জানুয়ারি, ২০২০

    Post Top Ad