Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    অভিমান করে প্রবাসী যুবকের আত্মহত্যা

    সৌদি আরব থেকে বাড়িতে ফিরে বাবার সাথে অভিমান করে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে এক প্রবাসী যুবক। নিহত যুবকের নাম শামীম হাওলাদার (২৩)। রোববার সকাল ১০টার দিকে মাদারীপুর সদর উপজেলার মোস্তফাপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত শামীম হাওলাদার ওই এলাকার আলম হাওলাদারের ছেলে।

    পারিবারিক ও হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার মোস্তফাপুর এলাকার আলম হাওলাদার ধার-দেনা করে ছেলে শামীমকে আড়াই বছর পূর্বে সৌদি আরব পাঠান। সেখানে দেড় বছরের বেশি সময় থাকার পর কাগজপত্রে সমস্যা দেখা দেয়ায় বাড়িতে চলে আসে শামীম। এদিকে ধার-দেনা করে সৌদি আরব গেলেও সেসব টাকা পরিশোধ না হওয়ায় বাড়ি আসার পর শামীম ইজিবাইক চালানো শুরু করে। কিন্তু এই কাজও নিয়মিত ভাবে না করায় ধার-দেনার টাকার চাপ বাড়তে থাকে।

    এরই জেরে রোববার সকালে বাবা আলম হাওলাদার বাড়ির কাজ-কর্ম নিয়ে শামীমকে বকুনি দেয়। একপর্যায়ে ছেলের উপর অভিমান করে শামীমের বাবা-মা বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যায়। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে বসতঘরের দরজা বন্ধ করে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস দেয় শামীম। পরে বাড়ির ভাড়াটিয়া জানালা দিয়ে শামীমকে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলতে দেখে ডাক-চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসে। পরে অচেতন অবস্থায় শামীমকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

    শামীমের চাচা আজিজুল হাওলাদার জানান, আমি ডাক-চিৎকার শুনে শামীমকে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলতে দেখি। পরে তাকে নামিয়ে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

    মাদারীপুর সদর থানার ওসি সাওগাতুল আলম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ বদরুল আলম মোলা বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। প্রাথমিকভাবে লাশের অবস্থা দেখে বোঝা গেছে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে

    Post Top Ad