• সর্বশেষ আপডেট

    কুমিল্লায় দুই মন্ত্রীর আসনে আ. লীগের একক প্রার্থী, ৯টিতে হেভিওয়েট স্বতন্ত্র

     

    কুমিল্লায় দুই মন্ত্রীর আসনে আ. লীগের একক প্রার্থী, ৯টিতে হেভিওয়েট স্বতন্ত্রতানভীর দিপু, কুমিল্লাপ্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৫:২৬ পিএমঅর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ও এলজিআরডি মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ছবি: ইনডিপেনডেন্টকুমিল্লার ১১টি আসনের দুটি বাদে সব ক’টিতেই আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। তাঁদের কেউ কেউ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এসেছেন। নির্বাচন সুষ্ঠভাবে প্রতিদ্বন্দিতাপূর্ণ হবে প্রত্যাশায় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন ছোট–বড় বিভিন্ন দলের প্রার্থীসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।তবে ভিন্ন চিত্র কুমিল্লা-৯ আসনে এলজিআরডি মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এবং কুমিল্লা-১০ অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের আসন দুটিতে। এই দুই আসনে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র কোনো প্রার্থী নেই।কুমিল্লার ১১টি আসনে মোট মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন ১২১ জন। এর মধ্যে ৯টি আসনেই আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিপরীতে রয়েছেন স্বতন্ত্র পরিচয়ে নির্বাচনি মনোয়নপত্র সংগ্রহ করা দলটির বিদ্রোহীরা। সবচেয়ে বেশি হেভিওয়েট স্বতন্ত্র প্রার্থী কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং–ব্রাহ্মণপাড়া) আসনে। কুমিল্লা-৮ আসনে স্বতন্ত্র হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত বর্তমান সংসদ সদস্য নাসিমুল আলম নজরুল। কুমিল্লা-৬ আসনে সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি আঞ্জুম সুলতানা সীমা স্বতন্ত্র নির্বাচন করতে চান। তাঁরা স্বতন্ত্র হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।অন্যদিকে, জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে সংসদ নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দিয়েছেন তিন জন। কুমিল্লার ১১টি আসনে স্বতন্ত্র পদে যে ৩০ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন তাঁদের মধ্যে অন্তত ২০ জন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হেভিওয়েট নেতা। তাঁদের প্রত্যাশা, সুষ্ঠ নির্বাচন হলে নৌকা প্রতীক ছাড়াই তাঁরা জয়ী হবেন।কুমিল্লা-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা এমপি বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়া বিভক্তি তৈরি করা নয়, বরং প্রতিযোগিতার বিষয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সুযোগ দিয়েছেন তাই নির্বাচনের আশা করছি।’কুমিল্লা–৫ আসনের সতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে আসা আবু জাহের। আওয়ামী লীগের এই স্বতন্ত্র প্রার্থী বলেন, ‘পাস করার আশায়ই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে নির্বাচনে এসেছি।’ কুমিল্লা-১০ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘যেসব উন্নয়ন প্রকল্প আমাদের হাতে আছে সেগুলো শেষ করতে হবে। তাই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তাদেরই মনোনয়ন দিয়েছে যারা এসব সম্পন্ন করতে পারবেন এবং তারাই পাস করবেন।’ কুমিল্লা-৯ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যাদের মনোনয়ন দিলেন তাদের পাস করানো ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগের সবার ঈমানি দায়িত্ব। আমরা আশা করি সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে একসঙ্গে কাজ করবে।’
    প্রকাশিত মঙ্গলবার ০১ ডিসেম্বর ২০২৩