• সর্বশেষ আপডেট

    অসুস্থ কন্যা শিশুকে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে গেল মা!

     

    জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ২৭ দিন বয়সী এক অসুস্থ কন্যা শিশুকে চিকিৎসা করতে এসে শিশুকে রেখে পালিয়ে গেছেন তাঁর মা। পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার ২ দিন হলেও খোঁজ মেলে নেই তাঁর মা-বাবার। সন্তান জন্মের পর পৃথিবীর সব চেয়ে নিরাপদ আশ্রয়স্থল মায়ের কোল। কিন্তু এ শিশুটি এই পৃথিবীকে চিনতে শেখার আগেই মায়ের স্নেহ ভালোবাসা থেকে বঞ্চিত হলেন।

    গত (১ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৫ টা দিকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের ৪র্থ তলার বারান্দায় এক নারীর কাছে ওই শিশুকে রেখে কৌশলে পালিয়ে যান তাঁর মা। এ ঘটনাটি বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে জানাজানি হয়।
    এর আগে গত (২৭ ফেব্রুয়ারী) বেলা ১২টা ৫ মিনিটে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের ৭নং ওয়ার্ডে অসুস্থ কন্যা শিশুকে ভর্তি করেন এক দম্পতি।

    হাসপাতালে ভর্তির সময় তাদের পরিচয় উল্লেখ করেন, শিশুটির নাম নিশি, মাদারগঞ্জ উপজেলার পাটাদহ ইউনিয়নের কয়রা এলাকার রকিব ও রোকসানা দম্পতির সন্তান।

    হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, নিশি নামে ওই শিশুকে ২৮ তারিখে ভর্তি করানো হয়। শিশুটির ওজনে কম এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হয়। একদিন চিকিৎসার পর ওই শিশুকে হাসপাতালের চতুর্থ তলার বারান্দায় শিশুটির মা এক নারীর কাছে রেখে হাসপাতালের নিচ তলায় যাওয়ার কথা বলে পালিয়ে যান। পরে ওই নারী হাসপাতালের নার্সদের এ ঘটনা জানালে তাঁর ওই শিশুকে আবার ওয়ার্ড এনে চিকিৎসা শুরু করেন। পালিয়ে যাওয়ার তিন দিন হলেও শিশুটির মা-বাবা আর হাসপাতালে খোঁজ নিতে আসেনি‌।

    জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স মাফিয়া সুলতানা বলেন,' হাসপাতালে চিকিৎসা করতে নিয়ে এসেছিল শিশুটিকে। একদিন চিকিৎসার পর কৌশলে এক নারীর কাছে রেখে পালিয়ে যান শিশুটির মা-বাবা। শিশুটির চিকিৎসা চলছে এখন।

    জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে জরুরী বিভাগের কর্মরত চিকিৎসক ডা: জান্নাত আরা মিলি বলেন,'শিশুটির ওজন কম এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি করানো হয়েছে। এই ঘটনারটি হাসপাতালের সহকারী পরিচালক কে জানানো হয়েছে।হাসপাতালের প্রশাসনিক ভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    প্রকাশিত শুক্রবার ০৩ মার্চ ২০২৩