• সর্বশেষ আপডেট

    মাদ্রাসা ছাত্রকে বেধড়ক পিটিয়ে, দুই শিক্ষক বরখাস্ত।

     

    শাকিল আহমেদ বরগুনাঃ জালিস মাহমুদ নামে ১১ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করার অভিযোগ উঠে বরগুনার দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটি  অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে।

    শনিবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে ওই মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ দুলাল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

    এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে পাথরঘাটা উপজেলার মাছের খাল এলাকার কোরবানিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত মিল্লাত হোসেন ও আল আমিন উভয়ই একই মাদ্রাসার হাফেজি বিভাগের শিক্ষক এবং আহত শিক্ষার্থীও একই মাদ্রাসার হাফেজি বিভাগের নিয়মিত ছাত্র।

    আহত মাদ্রাসা ছাত্র জালিস মাহমুদ বলেন, সে বাড়িতে আসতে চেয়েছিল। কিন্তু তাকে আসতে না দিয়ে সকালে দুই দফায় শিক্ষক মিল্লাত হোসেন ও আল আমিন বেত দিয়ে বেধড়ক পিটায়।

    আহত ছাত্রের বাবা জাকির হোসেন বলেন, ছেলের এমন অবস্থা দেখে আমরা হাসপাতালে নিয়ে যাই। পরে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে নিয়ে আসি।

    অভিযুক্ত শিক্ষকরা বলেন, ওই ছাত্র মাদ্রাসা পালাচ্ছিল তাই তাকে শাসন করার চেষ্টা করেছি। যদিও বিষয়টি বাড়াবাড়ি হয়ে গেছে। তাই স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে আমাদের বিচার করা হয়েছে। যা আমাদের ভবিষ্যতের জন্য চরম শিক্ষা হয়েছে। এমন কাজ আর হবে না।

    মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ দুলাল হোসেন বলেন, ছাত্রকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির জরুরি বৈঠকে অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
    প্রকাশিত শনিবার ২৭ আগস্ট ২০২২