Header Ads

parkview
  • সর্বশেষ আপডেট

    শ্রীলঙ্কায় সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীকে গুলি চালানোর নির্দেশ

     

    দেশজুড়ে চলমান ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট ও বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করেছেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। সোমবার তিনি প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের দফতরে পদত্যাগপত্র জমা দেন।
    শ্রীলঙ্কায় যদি কেউ সরকারি সম্পত্তি লুটপাট বা ব্যক্তিগত ক্ষতি করে তবে তার ওপর গুলি চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দেশটির সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীকে এই নির্দেশ দেয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। 
    মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কার স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর সামরিক বাহিনীর মুখপাত্রের বরাতে এই তথ্য জানায়। বর্তমানে দেশটিতে কারফিউ চলছে। বুধবার পর্যন্ত কারফিউ বলবৎ থাকবে।
    এর আগে শ্রীলঙ্কার পুলিশ এবং সেনাবাহিনীকে জরুরি ক্ষমতা দেওয়া হয়। এই ক্ষমতাবলে পুলিশ ও সেনাবাহিনী যেকোনো ব্যক্তিকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার করতে পারবে। 
    মঙ্গলবার দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে এই ক্ষমতা প্রদান করেন । এ ছাড়া এই ক্ষমতাবলে এখন থেকে সামরিক বাহিনী যেকোনো ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তরের আগে ২৪ ঘণ্টা নিজেদের কাছে রাখতে পারবে।
    মঙ্গলবার সরকারি এক আদেশে আরও বলা হয়, সেনাবাহিনী যেকোনো ব্যক্তির ব্যক্তিগত গাড়িসহ সম্পত্তিতে তল্লাশি চালাতে পারবে। 
    এদিকে গতকালকের সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ক্ষমতাসীন এক এমপিসহ আট জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুই শতাধিক। এ ছাড়া বিক্ষোভকারীরা রাজাপাকসে পরিবারের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন মন্ত্রী, এমপি, সাবেক মন্ত্রী এবং রাজনীতিবিদদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে। শুধু তাই নয়, মাহিন্দা রাজাপাকসের সরকারি বাসভবনেও আক্রমণ করেছে বিক্ষোভকারীরা।
    এ সময় তিনি অবরুদ্ধ অবস্থায় পড়ে যান। পরে পুলিশ ও সেনাবাহিনী গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। বর্তমানে দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ত্রিঙ্কোমালি শহরের একটি নৌঘাঁটিতে মাহিন্দা রাজাপাকসে এবং তার পরিবারের কিছু সদস্য আশ্রয় নিয়েছেন। ওই নৌ ঘাঁটিও ঘিরে রেখেছেন বিক্ষোভকারীরা।
    প্রকাশিত: মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad